চাঁদপুর, শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩  |   ২৮ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   চাঁদপুরের ২১তম জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান
  •   প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের ৫ পরীক্ষার্থী হতাহত
  •   হাজীগঞ্জের শিশু আরাফ হত্যায় তিন আসামীর মৃত্যুদণ্ড
  •   কল্যাণপুর ইউপির জেলে চাল আত্মসাৎ, দুই গুদাম সিলগালা
  •   মা আর স্ত্রীকে বুঝিয়ে দেয়া হলো দুই ভাইয়ের লাশ

প্রকাশ : ১২ জানুয়ারি ২০২২, ০০:০০

শিক্ষামন্ত্রীর কাছে নিয়মিত খেলার দাবি জানিয়েছেন চাঁদপুরের ক্রিকেটাররা
চৌধুরী ইয়াসিন ইকরাম ॥

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি এমপির কাছে চাঁদপুর স্টেডিয়ামে নিয়মিত খেলা আয়োজনের দাবি জানিয়েছেন জেলার উদীয়মান ক্রিকেটাররা। গত ক’দিন আগে চাঁদপুর স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত মাদকবিরোধী ফুটবল টুর্নামেন্টের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে ক্রিকেটার মাসুদ, সাদ্দাম ও আরিফসহ অন্যরা এ দাবি জানান। তারা বলেন, আপা, গত ৩ বছর ধরে চাঁদপুরে কোনো ক্রিকেট খেলা হচ্ছে না। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বাংলাদেশের সব জেলাতেই বঙ্গবন্ধুর নামে ক্রিকেট খেলার আয়োজন করা হচ্ছে। শুধুমাত্র ব্যতিক্রম চাঁদপুর জেলা। তারা দাবি করেন, অচিরেই চাঁদপুরে যেনো জাতির জনকের নামে বঙ্গবন্ধু টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট চালানো হয়। তিনি তাৎক্ষণিক জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা বাবুকে জিজ্ঞাসা করেন ক্রিকেট টুর্নামেন্ট পরিচালনার জন্যে কত টাকার প্রয়োজন। সেটা তিনি ব্যবস্থা করে দিবেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি ও পুলিশ সুপার মোঃ মিলন মাহমুদ বিপিএম (বার), জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ক্রীড়ানুরাগী আলহাজ¦ তাফাজ্জল হোসেন এসডু পাটওয়ারী, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি ও ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডঃ জাহিদুল ইসলাম রোমান, চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র অ্যাডঃ জিল্লুর রহমান জুয়েলসহ জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাথে জড়িত কর্মকর্তা ও ক্রীড়ামোদী দর্শকরা।

জেলার উঠতি বয়সী ক্রিকেটাররা এ সময় শিক্ষামন্ত্রীর কাছে আরো দাবি করেন, আপা, আমাদের এই চাঁদপুর জেলার তিন ক্রিকেটার এখন জাতীয় ক্রিকেট দলে খেলছে, অথচ আমাদের এই চাঁদপুর জেলায় নিয়মিত ক্রিকেট লীগ কিংবা ক্রিকেট টুর্নামেন্ট হচ্ছে না। চাঁদপুর জেলা শহরে অনেক ক্রিকেটার রয়েছেন, কিন্তু নিয়মিত খেলা না হওয়ার কারণে তারা তাদের ক্রীড়া নৈপুণ্য দেখাতে পারছেন না। উদীয়মান ক্রিকেটারদের মতে, চাঁদপুরের ছেলে হিসেবে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের টি-টোয়েন্টি দলে খেলছেন শামীম পাটোয়ারী, টেস্ট দলে রয়েছেন মাহমুদুল হাসান জয়। এছাড়া কচুয়ার মেহেদী হাসান বিপিএলসহ বিভিন্ন টুর্নামেন্টে ভালো খেলা খেলে যাচ্ছেন। নিয়মিত চাঁদপুর স্টেডিয়ামে খেলা চালানোর দাবিকারীদের মধ্যে সাদ্দাম এক সময় বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলের খেলোয়াড় ছিলেন। তিনিও নিয়মিত অনুশীলন ও প্রশিক্ষণের সুযোগ পাচ্ছেন না।

চাঁদপুর জেলা শহরে বর্তমানে দুটি ক্রিকেট একাডেমির মাধ্যমে প্রাইমারী স্কুল পড়ুয়া থেকে শুরু করে কলেজ পড়ুয়া অনেক ক্রিকেটার নিয়মিত অনুশীলন করে যাচ্ছেন। ক্রিকেটারদের অভিভাবকদের সাথে খেলাধুলা নিয়ে আলাপকালে তারা বলেন, আমাদের সন্তানরা নিয়মিত অনুশীলন করে যাচ্ছে। মাঝে-মধ্যে জেলা দলের হয়ে এদিক-ওদিক খেলতে যাচ্ছে। কিন্তু তারা কি শুধু অনুশীলন করে যাবে নাকি চাঁদপুরের নিয়মিত ক্রিকেট খেলাটা চালু হবে। বর্তমান সময়ে চাঁদপুরের ক্রীড়াঙ্গনে কেমন জানি হতাশা বিরাজ করছে। আর চাঁদপুরে যদিও ক্রিকেট খেলার আয়োজন করার সময় নির্ধারণ করা হয়, তাহলে ওই সময় দেখা যায় যে বৃষ্টি শুরু হচ্ছে। চাঁদপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাথে যারা জড়িত রয়েছেন তাদের উচিত মৌসুম ভিত্তিক খেলাগুলো চালানো। যেহেতু নতুন বছর শুরু হয়েছে, ইচ্ছা করলে জেলা ক্রীড়া সংস্থা পুরো বছরের কোন্ মাসে কোন্ ধরনের খেলা চালাবে সেই সূচি করে নিতে পারে। আমরা চাঁদপুর মেঘনা পাড়ের কন্যা এবং শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনির কাছে প্রত্যাশা করবো, চাঁদপুরের ক্রীড়াঙ্গনকে সতেজ করে রাখার জন্য চাঁদপুর স্টেডিয়াম মাঠে নিয়মিতভাবে যেন খেলাধুলার আয়োজন করা হয়, তাহলে ছেলেরা খেলাধুলার পাশাপাশি বিভিন্ন ভালো কাজ করার উৎসাহ পাবে।

এদিকে চাঁদপুর জেলায় যারা নিয়মিত ক্রিকেটের সাথে জড়িত রয়েছেন তারা আরো দাবি করছেন, চাঁদপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার মাধ্যমে যদি বছরে দু’টি প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগ ও দুটি টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট চালানো হয় তাহলে অনেক ক্রিকেটার ক্রিকেট খেলার সুযোগ পাবে। তারা শিক্ষামন্ত্রীর মাধ্যমে আরও প্রত্যাশা করেন যে, চাঁদপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থা থেকে যখনই যে ধরনের ক্রীড়াভিত্তিক ইভেন্টের খেলাগুলো শুরু হবে সেই খেলাগুলোর যেন ওই মৌসুমে এবং ঐ বছরেই ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয়। গত কয়েক বছর ধরে চাঁদপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থা থেকে ক্রিকেটের বেশ ক’টি টুর্নামেন্টের আয়োজন করা হয়, দেখা গেছে যে, এক বছরের খেলা কয়েক বছর পরে গিয়ে শেষ হয়েছে, এটা যেন না হয়। খেলার ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে সকলে জেলা ক্রীড়া সংস্থার কাছে প্রত্যাশা করছেন।

চাঁদপুর স্টেডিয়ামে বঙ্গবন্ধু-২০ প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগ কবে শুরু হচ্ছে এ ব্যাপারে রোববার সন্ধ্যায় ক্রীড়াকণ্ঠের এ প্রতিবেদক জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা বাবুর কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, সহসাই চাঁদপুর স্টেডিয়ামে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে অষ্টম বঙ্গবন্ধু টি-টুয়েন্টি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট শুরু হতে যাচ্ছে। তিনি আরো বলেন, আপনারা সহজেই জানতে পারবেন কবে থেকে খেলা শুরু হচ্ছে, আমরা খেলা চালানোর জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি।

চাঁদপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার ক্রিকেট উপ-কমিটির সম্পাদক ও ক্রীড়া সংগঠক শেখ মোতালেবের সাথে এই প্রতিবেদক রোববার সন্ধ্যায় মুঠোফোনে আলাপকালে তিনি বলেন, আশা করি ১৩ জানুয়ারি থেকে আমরা চাঁদপুর স্টেডিয়ামে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে অষ্টম বঙ্গবন্ধু টি-টুয়েন্টি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট শুরু করতে পারবো। যদি প্রাকৃতিক পরিবেশ ভালো থাকে, তাহলে আমরা সময় মতোই খেলা পরিচালনা করবো। আমরা খেলা চালানোর জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি। খেলাধুলার ব্যাপারে আমাদের শিক্ষামন্ত্রী আমাদেরকে বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করে যাচ্ছেন। ক্রিকেটারদের জন্যে আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি নিয়মিত ক্রিকেট খেলাটা চালানোর জন্যে। আমাদের এই টি-টুয়েন্টি ক্রিকেট টুর্নামেন্টে জেলা শহরের ৮টি দল অংশগ্রহণ করেছে। ইতিমধ্যে দুটি গ্রুপ ভাগ করে দেয়া হয়েছে। দু’-একদিনের মধ্যেই খেলার ফিকশ্চার তৈরি করা হবে এবং আশা করি এই সপ্তাহের মধ্যে আমরা খেলা শুরু করতে পারবো। আমরা যেন সুন্দরমতো খেলাগুলো পরিচালনা করতে পারি সেজন্যে অংশ নেয়া দলগুলোর সঙ্গে সকলের সহযোগিতা প্রত্যাশা করছি।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়