চাঁদপুর, বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪  |   ২৫ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   সেতু নির্মাণ হলে ঢাকা -চাঁদপুর সদরের দূরত্ব কমবে ৫২ কিলোমিটার
  •   মেঘনায় ট্রলারের ধাক্কায় জেলে নিখোঁজ
  •   নৌ-ধর্মঘট প্রত্যাহার, সকাল থেকে লঞ্চ চলাচল শুরু
  •   মতলব উত্তরে আবারও সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩
  •   কবরবাসী ইব্রাহিম এসএসসি‘তে পেয়েছে “এ“

প্রকাশ : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০০:০০

আই স্পোর্টস উন্মুক্ত ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল ১ অক্টোবর

হট ফ্যাভারিট ‘টিম পজিটিভে’র প্রতিপক্ষ ‘কড়ৈতলী উদয়ন যুব সংঘ’

হট ফ্যাভারিট ‘টিম পজিটিভে’র প্রতিপক্ষ ‘কড়ৈতলী উদয়ন যুব সংঘ’
শামীম হাসান ॥

ফুলবলের প্রতি মানুষের ভালোবাসা কতোটা ঋদ্ধ, কতোটা তীক্ষè, ক্রীড়ামোদী দর্শক কিংবা খেলোয়াড়, ক্রীড়া পাগল মানুষদের জন্য ফুটবলের বড় কোনো আয়োজন কতটা উৎসবের খোরাক হতে পারে ফরিদগঞ্জে আয়োজিত আই স্পোর্টস ফুটবল টুর্নামেন্টের প্রতিটি খেলায় হাজার হাজার দর্শকের উপস্থিতি সেটারই প্রমাণ বহন করে।

চলতি বছরের গত ২৬ জুলাই চাঁদপুর কণ্ঠের ক্রীড়া পাতায় সংবাদ প্রকাশের পর ফরিদগঞ্জ উপজেলা ক্রীড়াঙ্গনের স্বপ্নদ্রষ্টা জিয়াউর রহমান আই স্পোর্টস উন্মুক্ত ফুটবল টুর্নামেন্ট ঘোষণা দেন। এতে পুরো উপজেলার ৩২টি দল রেজিস্ট্রেশন করে। অতঃপর নকআউট নিয়মে শুরু হয় উপজেলার সর্ববৃহৎ ফুটবল টুর্নামেন্ট। ১৬ আগস্ট থেকে ১৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত প্রায় এক মাস জুড়ে ৩০টি ম্যাচ আয়োজনের পর ১২ সেপ্টেম্বর ও ১৩ সেপ্টেম্বর টুর্নামেন্টের সেমি-ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয়। সেমতে আগামী ১ অক্টোবর শনিবার বিকেলে ফরিদগঞ্জ এআর পাইলট মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে টুর্নামেন্টের ফাইনালে মুখোমুখি হবে ‘টিম পজিটিভ’ বনাম ‘কড়ৈতলী উদয়ন যুব সংঘ’।

জমকালো এই টুর্নামেন্টের ফাইনালে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ফরিদগঞ্জ উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাসলিমুন নেছা। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ শহীদ হোসেন, ফরিদগঞ্জ উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক নুরুন্নবী নোমান, আই স্পোর্টস উন্মুক্ত ফুটবলের প্রধান স্পন্সর ও ফরিদগঞ্জ স্পোর্টস ক্লাবের সভাপতি আহসান হাবীব, ফরিদগঞ্জ পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জাকির হোসেন গাজী ও ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোহাম্মদ হোসেন। সভাপতিত্ব করবেন ফরিদগঞ্জ এ আর পাইলট মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রফিকুল আমিন কাজল। টুর্নামেন্টকে জমকালো করতে ফাইনাল আয়োজনে উপস্থিত থাকবেন দেশের ফুটবলের তথা ক্রীড়াঙ্গনের উজ্জ্বল নক্ষত্র ফরিদগঞ্জের কৃতী সন্তান বাংলাদেশ ফুটবল দলের সাবেক অধিনায়ক ও ফরিদগঞ্জ ফুটবল একাডেমির সভাপতি রেজাউল করিম এবং বাংলাদেশ জাতীয় দলের ডিফেন্ডার ও সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের সাবেক অধিনায়ক রিয়াদুল হাসান রাফি।

ফাইনালে ওঠা ‘টিম পজিটিভ’ ফুটবল দলের ম্যানেজার মাহাবুব আলম সোহাগ চাঁদপুর কণ্ঠের এই প্রতিনিধিকে জানান, টুর্নামেন্টের শুরু থেকে আমরা আমাদের টিম নিয়ে যথেষ্ট সুশৃঙ্খল ফুটবল খেলে ফাইনালে এসেছি। আমাদের এখানকার স্থানীয় ফুটবলারদের সাথে চাঁদপুরসহ বাইরের যেসব ফুটবলার দলে আছে সব মিলেয়ে খেলোয়াড়দের কম্বিনেশন বেশ ভালো। তাছাড়া মাঠের কন্ডিশন আমাদের খেলোয়াড়দের চিরচেনা। তাই মাঠের খেলায় নিজেদের সেরা খেলতে পারলেই আমাদের শিরোপা নিশ্চিত করতে পারবো।

ফাইনালে ওঠা অপর দল কড়ৈতলী উদয়ন যুব সংঘের টিম ম্যানেজার মোর্শেদ পরান চাঁদপুর কণ্ঠের এই প্রতিনিধিকে জানান, যেহেতু বরাবরের মতো পুরো টুর্নামেন্টে আমরা ভালো খেলেই ফাইনালে এসেছি, আমরা বিশ্বাস করি দলের ডিফেন্ডাররা পুরো টুর্নামেন্টের মতো ভালো খেলতে পারলে টুর্নামেন্টের এই আসরটিতে আমরা চ্যাম্পিয়ন হবো।

সফলতম এই টুর্নামেন্ট আয়োজনের বিষয়ে এই টুর্নামেন্টের প্রধান উদ্যোক্তা জিয়াউর রহমান জিয়া জানান, এই টুর্নামেন্ট আয়োজনে সকল ধোঁয়াশা কাটিয়ে আমরা সফলতার দ্বারপ্রান্তে। ক্রীড়াঙ্গন সরব রাখতে সামনের দিনগুলোতে প্রতি বছর এমন আয়োজন করার উদ্যোগ নিবো। দর্শক এবং দলগুলোর প্রতি আমরা একান্ত কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। কারণ ৩২টি দল ও দর্শকদের কারণে ফুটবলের এমন আয়োজনটি অসাধারণ হয়ে উঠেছে। এছাড়া এই আয়োজনের প্রধান স্পন্সর আহসান হাবীবের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ। কারণ উপজেলার ক্রীড়াঙ্গনের সকল আয়োজনে তিনি আন্তরিকতার সাথে এগিয়ে আসেন।

টুর্নামেন্টের সমন্বয়ক ও রেফারী আনোয়ার হোসেন সজিব জানান, খেলাতে যত ধরনের সমস্যা সৃষ্টি হয়, সেসব সমস্যা ডিঙ্গিয়ে ফরিদগঞ্জের বাইরের কোনো রেফারীবিহীন এমন সফল টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে পারায় আমরা নিজেদের ভাগ্যবান মনে করছি। এই টুর্নামেন্টের অনুপ্রেরণায় আগামী দিনগুলোতে মৌসুমভিত্তিক ফুটবল ও ক্রিকেট আয়োজন করবো বলে আমরা প্রত্যাশা করি। এছাড়া সকল দল এবং দর্শকদের প্রতি আমরা একান্ত কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি পুরো টুর্নামেন্ট জুড়ে একান্তভাবে আমাদের সহযোগিতা করার জন্যে।

ফাইনালে চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ দলকে ট্রফি, প্রাইজমানি এবং প্রত্যেক খেলোয়াড়কে মেডেল প্রদান ছাড়াও পুরো টুর্নামেন্টের ম্যান অব দ্যা টুর্নামেন্ট, সেরা গোলরক্ষক, সেরা গোলদাতা, সেরা টিম ম্যানেজার, টুর্নামেন্টের সবচেয়ে সুশৃঙ্খল দলকে বিশেষ পুরস্কার প্রদান করা হবে। টুর্নামেন্টের প্রধান রেফারীর দায়িত্বে ছিলেন জিয়াউর রহমান জিয়া এবং আনোয়ার হোসেন সজিব। সহকারী রেফারির দায়িত্বে ছিলেন গিয়াস উদ্দিন ও নোমান শান্ত।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়