চাঁদপুর, বুধবার, ৭ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪  |   ১৯ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   গাঁজাসহ এক নারী গ্রেফতার
  •   সরকার সড়ক নিরাপদসহ বাংলার মানুষের মঙ্গলের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন : সিনিয়র সচিব শাহ্ কামাল
  •   যেমন প্রার্থী তেমন ভোটার
  •   চাঁদপুর সদর ও পৌর আওয়ামী লীগে পুরানোরাই বহাল
  •   পিন পতন নীরবতা ও স্তব্ধতা

প্রকাশ : ১৩ জুন ২০২২, ১৭:৪৭

চার মোবাইল অপারেটরকে ৭ কোটি ৬৫ লাখ টাকা জরিমানা

স্টাফ রিপোর্টার
চার মোবাইল অপারেটরকে ৭ কোটি ৬৫ লাখ টাকা জরিমানা

অবৈধ ভিওআইপির (ভয়েস ওভার ইন্টারনেট প্রটোকল) কাজে সিম ব্যবহার হওয়ায় চার মোবাইল অপারেটরকে মোট ৭ কোটি ৬৫ লাখ টাকা জরিমানা করেছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

বিটিআরসির অভিযানে উদ্ধারকৃত অবৈধ ভিওআইপিতে ব্যবহৃত সিম নিয়ে মোবাইল ফোন অপারেটরদের আবেদন, শুনানী ও পর্যবেক্ষণ শেষে নিয়ন্ত্রণ সংস্থা এ জরিমানা করে।

গত ৭ জুন বিটিআরসির সচিব মো. নূরুল হাফিজের সই করা এক চিঠিতে চার মোবাইল অপারেটরকে ৩০ জুনের মধ্যে জরিমানা পরিশোধের জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এতে টেলিটককে ৫ কোটি টাকা, রবিকে ২ কোটি টাকা, গ্রামীণফোনকে ৫০ লাখ টাকা এবং বাংলালিংককে ১৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। আগামী ৩০ জুনের মধ্যে অপারেটরগুলোকে প্রশাসনিক জরিমানা পরিশোধের জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বিটিআরসি সূত্রে জানা গেছে, আইন প্রয়োগকারী সংস্থা বিটিআরসির সহযোগিতায় বিভিন্ন অভিযানে ২০১৮ ও ২০১৯ সালে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ভিওআইপি সরঞ্জামসহ বিভিন্ন অপারেটরের ৫২ হাজার ৩৪৪টি সিম কার্ড জব্দ করেছে।

বিটিআরসি বলছে, এর দায়ভার কোনোভাবেই অপারেটরগুলো এড়াতে পারে না। কেননা, সরকারের নিয়ম অনুযায়ী বায়োমেট্রিক বা আঙুলের ছাপ ও এনআইডি নম্বর যাচাই সাপেক্ষে সিম বিক্রি করতে হয়। অথচ, অবৈধ ভিওআইপি ব্যবসায়ীরা টেলিকম অপারেটরদের অসাধু কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করে হাজার হাজার সিম সংগ্রহ করে এই অবৈধ ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে।

বিটিআরসির নিয়মিত অভিযান পরিচালনার পরও অবৈধ ভিওআইপি ব্যবসা থামানো যাচ্ছে। অভিযানে উদ্ধারকৃত সিমের মধ্যে টেলিটকের সিমই সবচেয়ে বেশি পাওয়া যায়। এছাড়াও রবি, গ্রামীণফোন ও বাংলালিংকের সিমও ব্যবহৃত হয়।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়