চাঁদপুর, সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১ আশ্বিন ১৪২৯, ২৯ সফর ১৪৪৪  |   ৩২ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   চাঁদপুর জেলা পরিষদ নির্বাচনে ৩ চেয়ারম্যানের প্রার্থিতা প্রত্যাহার
  •   হাইমচরে বজ্রপাতে নৌকা থেকে পড়ে জেলে নিঁঁখোজ
  •   চাঁদপুরে চুরি হওয়া ৪২ মোবাইল উদ্ধার
  •   ফরিদগঞ্জে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু
  •   টাকার বিনিময়ে নকল সরবরাহ করেন শিক্ষকরা!

প্রকাশ : ০৯ আগস্ট ২০২২, ১০:৩২

ইতালিতে বঙ্গমাতার ৯২তম জন্মবার্ষিকী পালিত  

ইতালি প্রতিনিধি
ইতালিতে বঙ্গমাতার ৯২তম জন্মবার্ষিকী পালিত  

গভীর শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের-সহধর্মিনী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবের- ৯২তম জন্মবার্ষিকী যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করা হয়েছে। ৮ আগষ্ট সোমবার ২০২২ রোমে বাংলাদেশ দূতাবাসের কার্যালয়ে দিনটি পালন করা হয়।

আয়োজিত অনুষ্ঠান সূচির মধ্যে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবের প্রতিকৃতিতে রাষ্ট্রদূত ও কমিউনিটির নেতৃবৃন্দের পুস্পস্তবক অর্পণ, তার স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে এক মিনিট নিরবতা পালন, বাণী পাঠ, তার জীবনের উপর নির্মিত প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শন,আলাচনা সভা এবং বিশেষ দোয়া মোনাজাত করা হয়েছে।

ইতালি, মন্টেনিগ্রো ও সার্বিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোঃ শামীম আহসান শুরুতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব এবং ১৫ আগস্ট ১৯৭৫ রাতে নিহত সকল শহিদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এসময় শহিদ শেখ ফজিলাতুন নেছার প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে রাষ্ট্রদূত বলেন,বঙ্গমাতার আদর্শ বাঙ্গালি নারীদের কাছে সবসময় অনুপ্রেরণার উৎস হিসেবে বিবেচিত হবে। রাষ্ট্রদূত, বলেন, বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সাথে চিরদিন ছায়ার মতো থেকেছেন এবং বঙ্গবন্ধুকে জাতীয় ইতিহাসের বিভিন্ন রাজনৈতিক সংকটময় ও কঠিন মুহূর্তে সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণে নীরবে সহায়তা করে গিয়েছেন। রাষ্ট্রদূত আরও বলেন, স্বাধীনতা পরবর্তী দেশ বিনির্মাণেও তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রদূত সকলকে বঙ্গমাতার আদর্শে অনুপ্রাণিত হওয়ার আহবান জানান।

দূতাবাসের প্রথম সচিব (শ্রম কল্যান) আসিফ আনাম সিদ্দিকী এবং মিজ আয়েশা আক্তার অনুষ্ঠান সঞ্চালন করেন। অনুষ্ঠানে দূতাবাসের কর্মকর্তা কর্মচারী ছাড়াও বীর মুক্তিযোদ্ধা, বিপুল সংখ্যক রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এবং গণমাধ্যম কর্মীরা অংশগ্রহণ করেন। এসময় কম্যুনিটির বক্তারা বঙ্গমাতার প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করে তার আদর্শ অনুসরণের উপর জোর দেন। অনুষ্ঠান শেষে আমন্ত্রিত অতিথিদের আপ্যায়ন করা হয়

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়