রোববার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ৮ কার্তিক ১৪২৮, ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩  |   ২৯ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   হাইমচরে শীতকালীন সবজির বাম্পার ফলন, দামে অসন্তুষ্ট কৃষক : সবজি ক্ষেতে সবুজ হাসি থাকলেও কৃষকের মুখ ম্লান
  •   অশুভ শক্তি শক্তিশালী হলেও জয়ি হতে পারবে না : শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি এমপি

প্রকাশ : ১৪ অক্টোবর ২০২১, ০২:৪৪

হাজীগঞ্জে পুলিশ-জনতা সংঘর্ষ : গুলিতে নিহত ৩

১৪৪ ধারা জারি 

মিজানুর রহমান
হাজীগঞ্জে পুলিশ-জনতা সংঘর্ষ : গুলিতে নিহত ৩
হাজীগঞ্জে পুলিশ-জনতা সংঘর্ষে আহত পুলিশ ও নিহতরা

চাঁদপুরে কুমিল্লায় পূজামন্ডপে পবিত্র কোরআন শরীফ অবমাননার ঘটনাকে কেন্দ্র করে হাজীগঞ্জ বাজারে পুলিশ ও বিক্ষুব্ধ জনতার মাঝে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

১৩ অক্টোবর বুধবার সন্ধ্যার পর সংঘটিত ওই ঘটনায় গুলিতে ৩ জন নিহত হয়েছেন। নিহতরা হলেন- বাবলু (২৮), আল আমিন (১৮) ও হৃদয় (১৪) নামে এক কিশোর। এছাড়া পুলিশ-জনতাসহ ৩৫-৪০ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ফাঁকা গুলি ও টিয়ারশেল ছুড়েছে বলে জানা যায়।

এদিকে, সহিংস পরিস্থিতিতে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত হাজীগঞ্জ পৌর এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করেছে প্রশাসন।

হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা সোহেল আহমেদ চিশতী বলেন, হাসপাতালে ৪ জন ভর্তি হয়েছে। এর মধ্যে ৩ জন মারা গেছেন।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, বুধবার সন্ধ্যায় কুমিল্লায় পূজামন্ডপে পবিত্র কোরআন অবমাননার খবর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পরলে এ ঘটনার প্রতিবাদে হঠাৎ হাজীগঞ্জ বাজারে একটি প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলটি বাজারের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে হাজীগঞ্জ মধ্যবাজার মন্দিরের সামনে গেলে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়।

খবর পেয়ে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ঘটনাস্থলে গেলে সংঘর্ষ শুরু হয়।

পুলিশ জানায়, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনতে তারা রাবার বুলেট ছুড়েছে। এতে মিছিলে থাকা রায়চোঁ গ্রামের আল আমিন (১৮), হোটেল শ্রমিক চাপাইনবাবগঞ্জের বাবলু (২৮) ও পথচারী এক কিশোর রান্ধুনীমুড়া গ্রামের ফজলু মিয়ার ছেলে হৃদয় (১৪) গুলিবিদ্ধ হন। পরে তাদেরকে হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে রাতে হাজীগঞ্জ পশ্চিম বাজার বিশ্বরোড এলাকায় গাড়ি ভাংচুর করা হয়েছে বলে যাত্রীরা অভিযোগ করেছেন। পরিস্থিতি শান্ত করতে হাজীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান গাজী মো. মাঈনুদ্দিন, পৌর মেয়র আসম মাহবুব উল আলম লিপনসহ নেতারা ও পুলিশ প্রশাসন প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন।

হাজীগঞ্জ থানার ওসি হারুনুর রশিদ বলেন, আমরা পরিস্থিতি সামাল দিতে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। হামলাকারীদের শনাক্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। হাজীগঞ্জ বাজার পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

চাঁদপুরের পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ বলেন, মৃত্যুর কথা শুনেছি। তবে কয়জন, তা নিশ্চিত না হয়ে কিছু বলা যাচ্ছে না।

এদিকে সহিংস পরিস্থিতিতে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত হাজীগঞ্জ পৌর এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করেছে প্রশাসন। একই সঙ্গে বুধবার রাতে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে দুই প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ ।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়