রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮  |   ২৩ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   হাজীগঞ্জে ৪৩তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলার উদ্ধোধন
  •   কচুয়ায় কলেজ ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার
  •   স্বাক্ষর জাল করে আওয়ামীলীগের তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা পরিবর্তনের অভিযোগ
  •   বিএনপির মানিক-শাহীন দুই গ্রুপের সাথে যুগ্ম মহাসচিবের সভা
  •   কচুয়ায় বিপুল পরিমাণ গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

প্রকাশ : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১৭:০৬

প্রেমিককে ছুরিকাঘাতের পর প্রেমিকার আত্মহত্যা

মোহাম্মদ মহিউদ্দিন/মেহেদী হাসান
প্রেমিককে ছুরিকাঘাতের পর প্রেমিকার আত্মহত্যা

কচুয়ায় প্রেমিককে ছুরকাঘাতের পর সানজিদা আক্তার মিতু (১৬) নামের এক প্রেমিকা বিষপানে আত্মহত্যা করেছে। চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি ঘটেছে কচুয়া উপজেলার আটমোড় গ্রামে।

জানা যায়, উপজেলার চাংপুর গ্রামের মৃত মোস্তাক মিয়ার ছেলে সোহাগ প্রধান (২০) ও একই গ্রামের মনির হোসেনের মেয়ে এসএসসি পরীক্ষার্থী সানজিদা আক্তার মিতু সাথে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল।

গত শনিবার আটমোড় জামে মসজিদের পুকুরে সোহাগ গোসল করতে যায়। এ সময় প্রেমিকা মিতু সোহাগের সাথে ঘাটলায় দেখা করতে আসে। পরে তারা উভয়ের বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পরে। এক পর্যায়ে মিতু সোহাগের গলায় ছুরিকাঘাত করে।

সোহাগের ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে এসে সোহাগকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ঢাকায় রেফার করে। বর্তমানে সে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

ঘটনার কিছুক্ষণ পর মিতু বাড়ি ফিরে সেও বিষপান করে। বিষপানের বিষয়টি টের পেয়ে পারিবারের লোকজন মুমুর্ষ অবস্থায় সানজিদা আক্তার মিতুকে পাশ্ববর্তী দাউদকান্দির উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

মিতুর মা লাকি বেগম ও বাবা মনির হোসেন সোহাগের সাথে তাদের মেয়ের প্রেমের সম্পর্কের বিষয়ে কিছুই জানেন না বলে দাবী করেন।

এদিকে সোহাগ প্রধানের পক্ষ থেকে তিনজনকে বিবাদী করে কচুয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে। অপরদিকে জানা যায়, সানজিদা আক্তার মিতুর পরিবারের পক্ষ থেকেও মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

কচুয়া থানার ওসি মো. মহিউদ্দিন বলেন, প্রেম সংক্রান্ত বিষয়ের কারনে এ চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটেছে। সানজিদা আক্তারের লাশ উদ্ধার করে চাঁদপুর মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উল্লেখ্য যে, সোহাগ আটমোড় গ্রামের একটি হোটেলে দির্ঘদিন যাবৎ কারিগর হিসেবে কাজ করতো। তাই সোহাগ আটমোড় গ্রামে থাকতো। মিতু ও সোহাগের প্রেম সম্পর্কে জড়িত হওয়ার বিষয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে বেশ গুঞ্জন চলছিলো।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়