রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮  |   ২৩ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   হাজীগঞ্জে ৪৩তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলার উদ্ধোধন
  •   কচুয়ায় কলেজ ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার
  •   স্বাক্ষর জাল করে আওয়ামীলীগের তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা পরিবর্তনের অভিযোগ
  •   বিএনপির মানিক-শাহীন দুই গ্রুপের সাথে যুগ্ম মহাসচিবের সভা
  •   কচুয়ায় বিপুল পরিমাণ গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

প্রকাশ : ২৫ নভেম্বর ২০২১, ১৩:৫৭

'রক্ত কেন ঝরছে, সরকার কী মরছে?'

রাসেল হাসান

ঢাকা নটরডেম কলেজের ছাত্র নাঈম হাসানের মৃত্যুতে রাজপথে নেমেছে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্ররা। সড়ক অবরোধ করে নাঈম হত্যার বিচারসহ আরো কয়েক দফা দাবী জানিয়েছে শিক্ষার্থীরা। ঢাকা ফার্মগেট চত্তরে সড়ক অবরোধ করে ছাত্ররা শ্লোগান তোলে, 'আমরাও বাঁচতে চাই, নাঈম হত্যার বিচার চাই', 'রক্ত কেন ঝরছে, সরকার কী মরছে?' 'লেখাপড়া করে যে, গাড়ি চাপা পড়ে সে!'

এভাবেই নাঈম হত্যার প্রতিবাদে আজ (২৫ নভেম্বর) ফার্মগেট চত্তরসহ ঢাকার বিভিন্ন স্থানে অবরোধ চলছে। গতকাল বুধবার (২৪ নভেম্বর) রাজধানীর গুলিস্তানে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ময়লার গাড়ির ধাক্কায় প্রাণ গেল নটর ডেম কলেজের ছাত্র নাঈম হাসানের (১৭)। সহপাঠীর মৃত্যুর প্রতিবাদে ঢাকা ফার্মগেট চত্তরে অবস্থান নেয় সরকারি বিজ্ঞান কলেজ ও হলিক্রস কলেজের শিক্ষার্থীরা।

দুই কলেজের শিক্ষার্থীরা জড়ো হয়ে নাঈম হত্যার বিচার, লাইসেন্স বিহীন গাড়ির রুপ পারমিট বাতিল ও ছাত্র-ছাত্রীদের গাড়িতে হাফ ভাড়া দেয়ার দাবীতে আন্দোলন চালায়। এ সময় ছাত্ররা বিভিন্ন পেস্টুন নিয়ে রাস্তায় বসে পড়ে। বিভিন্ন পেস্টুনে শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন শ্লোগানের মাধ্যমে প্রতিবাদ জানায়। তাদের প্রতিবাদী কথাগুলো মধ্যে অন্যতম ছিলো, 'আমার ভাই কবরে, খুনি কেনন বাহিরে?' 'উই ওয়্যান্ট জাস্টিস', 'আর কত মরলে, দুর্ঘটনা কমবে?' 'নাঈম তোমার রক্ত, বৃথা যেতে দিবো না', 'আমার ভাই মরলো কেন? প্রশাসন বিচার চাই' ইত্যাদি।

এ সময় পুলিশ এসে ছাত্রদের ঘরে ফেরাতে চাইলেও তা আমলে নেয়নি ছাত্ররা। বরং নিজেরাই আটককৃত গাড়িগুলোর লাইসেন্স চেক করছে। সড়কে ইমার্জেন্সি লেন তৈরি করে এ্যাম্বুলেন্স ও জরুরী কাজে নিয়োজিত লাইসেন্সবাহী গাড়িগুলোই শুধু ছাড়তে দেখা গেছে।

নিহত নাঈম হাসান নটর ডেম কলেজের উচ্চমাধ্যমিক দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ছিল। ২৪ নভেম্বর দুপুর ১২টার দিকে নাঈম রাস্তা পার হচ্ছিল। এমন সময় ময়লার গাড়ি এসে প্রথমে তাকে ধাক্কা দেয় ততারপর পিষে চলে যায়। নাঈমের বন্ধুরা তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজে নিলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নাঈম নটরডেম কলেজের মানবিক বিভাগের মেধাবী ছাত্র ছিল।

ঢাকা হলিক্রস কলেজের ছাত্রী আঞ্জুমারা আন নাস জানান, এভাবে মেধাবী ছাত্রের সড়ক রঞ্জিত হতে পারে না। আগেও সরকার নিরাপদ সড়ক গঠনের আশ্বাস দিয়েছিলো আমাদের। কিন্তু ফলাফল শূণ্য। সড়ক এখন আগের মতই যাচ্ছে তাই। তাই এবারের আন্দোলন সড়ক সুদ্ধতার আন্দোলন। আমরা নাঈমের রক্ত বৃথা যেতে দিবো না।

সরকারি বিজ্ঞান কলেজের ছাত্র হাসান ইবনে ফয়েজ জানান, পরবর্তী নাঈম হয়তো আমিই হবো। মেধাবীরা প্রাণ হারাবে আর পরিবহণ শ্রমিকরা একের পর এক দুর্ঘটনা ঘটিয়ে সরকারের সাথে দুধ কলা খাবে তা হতে পারে না। নিরাপদ সড়কের দাবীতে আমাদের আন্দোলন চলছে, চলবে।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়