চাঁদপুর, বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩  |   ৩৩ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   হাজীগঞ্জের শিশু আরাফ হত্যায় তিন আসামীর মৃত্যুদণ্ড
  •   কল্যাণপুর ইউপির জেলে চাল আত্মসাৎ, দুই গুদাম সিলগালা
  •   মা আর স্ত্রীকে বুঝিয়ে দেয়া হলো দুই ভাইয়ের লাশ
  •   বাকিলা উচ্চ বিদ্যালয়ে ভিম ধ্বসে ৩ ছাত্রী গুরুতর আহত
  •   আশিকাটিতে খাটের নিচে গৃহবধূর লাশ ॥ স্বামী পলাতক

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি ২০২২, ০০:০০

দুজন ভালো মানুষের চিরবিদায়
অনলাইন ডেস্ক

সোমবার চাঁদপুর শহরে দুজন ভালো মানুষের চিরবিদায় হয়েছে। সারা শহরে ছড়িয়ে পড়ে শোকের ছায়া। এদিন সন্ধ্যা নেমে আসে যেনো শোকের আঁধারে বেশি কালো হয়ে। চাঁদপুর শহর দানশীল নামে বহুল পরিচিত সুপ্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী কার্তিক চন্দ্র সাহা সোমবার বিকেল ৪টায় পুরাণবাজারের নিতাইগঞ্জস্থ তার নিজ বাসভবনে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৮ বছর। তিনি স্ত্রী, ২ পুত্র ও ১ কন্যাসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তিনি জীবদ্দশায় বহু ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান নির্মাণসহ নীরবে-নিভৃতে অনেক সেবামূলক কাজ করেছেন। পাশে দাঁড়িয়েছেন অসহায় মানুষের। তাঁর প্রচেষ্টায় পুরাণবাজারে গড়ে উঠেছে শ্রী শ্রী লোকনাথ মন্দির ও আশ্রম, পুরাণবাজার নিতাইগঞ্জস্থ তার বাসভবন সংলগ্ন শ্রী শ্রী অনুকূল চন্দ্র ঠাকুরের মন্দির ও সার্বজনীন দুর্গা মন্দির। এছাড়া পুরাণবাজার শ্রী শ্রী গৌর নিত্যানন্দ মহাপ্রভুর মন্দির, চাঁদপুর মহাশ্মশান সংস্কারসহ বহু ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান সংস্কার ও নির্মাণে তার রয়েছে ব্যাপক অবদান। তিনি গত ক’বছর কিডনি ও হৃদরোগে ভুগছিলেন। তাঁর মৃত্যুতে চাঁদপুর চেম্বার অব কমার্সের প্রেসিডেন্ট আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর আখন্দ সেলিম গভীর শোক প্রকাশ করেছেন এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানিয়েছেন। তার সম্মানে গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত পুরাণবাজারে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসমূহ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত জানান তিনি। এছাড়া স্থানীয় এমপি শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সুভাষ চন্দ্র রায়, সাধারণ সম্পাদক তমাল কুমার ঘোষসহ হিন্দু সম্প্রদায়ের বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, ব্যবসায়ী সম্প্রদায়, বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ কার্তিক সাহার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। শোক প্রকাশ করতে গিয়ে পূজা পরিষদ নেতৃবৃন্দ বলেছেন, কার্তিক সাহা একজন ব্যবসায়ীই ছিলেন না, তিনি ছিলেন একজন দানশীল পরোপকারী ধার্মিক মানুষ। তার মৃত্যুতে সনাতন ধর্মাবলম্বী মানুষদের অনেক বড় ক্ষতি হলো। তারা হারালো একজন ঘনিষ্ঠ সহচরকে। তার ভালো কাজ তাকে চিরস্মরণীয় করে রাখবে।

কার্তিক সাহার মৃত্যুর ৪০ মিনিট আগে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন অপ্রতিদ্বন্দ্বী সড়ক পরিবহন শ্রমিক নেতা আনোয়ার হোসেন মুন্সী। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬২ বছর। তিনি স্ত্রী, এক ছেলে ও দু মেয়ে রেখে গেছেন। তিনি ছিলেন চাঁদপুর জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন (রেজিঃ নং ১২২০)-এর প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক। তাকে গুরুতর অসুস্থাবস্থায় ঢাকা নেয়ার পথে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তার অকাল মৃত্যুতে শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাছির উদ্দিন আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম দুলাল পাটোয়ারী, চাঁদপুর জেলা বাস-মিনিবাস মালিক সমিতি, আন্তঃজেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন ও চাঁদপুরস্থ হাজীগঞ্জ সমিতির নেতৃবৃন্দ গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

আমাদের পর্যবেক্ষণে চাঁদপুর শহরে নির্দলীয় নিরপেক্ষ দুজন ভালো মানুষ ছিলেন কার্তিক চন্দ্র সাহা ও আনোয়ার হোসেন মুন্সী। এরা কিন্তু একদিনে নিজেদের গড়ে তোলেননি এবং সুন্দর ভাবমূর্তি তৈরি করেননি। নিজের পরিবার ও পেশায় সময় দেয়ার পাশাপাশি এরা জনস্বার্থ ও ধর্মীয় কাজকে গুরুত্ব দিয়েছেন। সাধারণ মানুষ এদেরকে দেখতো ভিন্ন চোখে এবং সম্মান করতো অবলীলায়। আমরা চাঁদপুর শহরের এ দুজন ভালো মানুষের মৃত্যুকে অকালমৃত্যুই বলবো। আমরা তাদের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করছি ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানাচ্ছি এবং বিদেহী আত্মার শান্তি/মাগফেরাত কামনা করছি।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়