চাঁদপুর, শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৩ মহররম ১৪৪৪   |   ২৮ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   নানার বাড়িতে বেড়াতে এসে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু
  •   নাতির নিরাপত্তা চেয়ে দাদির দৌঁড়ঝাঁপ ! 
  •   অবশেষে চাঁদপুর-শরিয়তপুর নৌরুটে রো রো ফেরি
  •   ফরিদগঞ্জে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে গৃহবধূর মৃত্যু
  •   কুড়িয়ে পাওয়া টাকা ফেরত........

প্রকাশ : ২৮ মে ২০২২, ০০:০০

আব্দুস সবুর মন্ডলের জন্যে অনেক শুভ কামনা

আব্দুস সবুর মন্ডলের জন্যে অনেক শুভ কামনা
অনলাইন ডেস্ক

একজন কাজপাগল সরকারি কর্মকর্তা মোঃ আব্দুস সবুর মন্ডল। বিদেশে যাওয়া ছাড়া এবং ছুটিগ্রহণ ছাড়া সাপ্তাহিক ছুটিসহ অন্যান্য ছুটির দিনকেও তিনি তাঁর কর্মস্থলে কর্মদিবস হিসেবেই ব্যস্ততার সাথে কাটাতেন। অখণ্ড সততায় নিজের অবস্থান ঠিক রেখে জনগণের কাছাকাছি পৌঁছার সকল কৌশলই যেনো তাঁর রপ্ত। উদ্ভূত পরিস্থিতি সামাল দেয়া এবং ব্যবস্থাপনাগত দক্ষতা তাঁর ঈর্ষণীয়। সৌভাগ্যক্রমে তিনি চাঁদপুরে ১৮তম জেলা প্রশাসক হিসেবে প্রায় তিন বছরের সোনালি কর্মকাল অতিক্রম করেছেন। স্থানীয় কোনো রাজনৈতিক গ্রুপের দ্বারা তিনি মোটেও প্রভাবিত না হয়ে বিপুল কর্মযজ্ঞে চাঁদপুরকে সমৃদ্ধ করে গেছেন। তিনি চাঁদপুরের ইতিহাসে সর্বকালের সেরা জেলা প্রশাসক হিসেবেই কেবল বিবেচিত নন, ২০১৬ সালে বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ জেলা প্রশাসক হিসেবে পুরস্কৃত হন।

২০১৭ সালে জেলা ব্র্যান্ডিং ধারণা প্রবর্তন এবং ‘ইলিশের বাড়ি চাঁদপুর’ নামে চাঁদপুরকে দেশের প্রথম ব্র্যান্ডিং জেলায় স্বীকৃতি এনে সরকারি-বেসরকারি মহলে ব্যাপক সাড়া জাগাতে সক্ষম হন। এজন্যে সরকারও তাঁকে জাতীয় পর্যায়ে জনপ্রশাসন পদক দিয়ে সর্বোচ্চ মূল্যায়ন করেন। এছাড়া চাঁদপুর জেলায় মাতৃমৃত্যু ও শিশু মৃত্যুর হার কমানোর ক্ষেত্রে তাঁর ধারণা বিশেষ ভূমিকা পালন করায় ২০১৯ সালে জেলা পর্যায়ে জনপ্রশাসন পদক লাভ করেন।

জাতীয় ও জেলা পর্যায়ে দুবার এমন পদক পাওয়া কর্মকর্তা বাংলাদেশে হাতে গোণা ক’জনই আছেন। তিনি চাঁদপুরে কর্মরত থাকাবস্থাতেই যুগ্ম সচিব হিসেবে পদোন্নতি পান। এখান থেকে বদলি হয়ে তিনি যে সকল কর্মস্থলে একের পর এক সুনামের সাথে দায়িত্বপালন করছিলেন, সেটা চেনাজানা মানুষ ও শুভাকাক্সক্ষীদের নিকট ভালোই ঠেকছিলো। কিন্তু তাদের প্রত্যাশা ছিলো, তিনি আরো অনেক উঁচু পর্যায়ে পদায়ন পেয়ে তাঁর যোগ্যতা ও দক্ষতার সর্বোচ্চ প্রতিফলন ঘটাক। তিনি অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতি পাওয়ার পর ২০২১ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক পদে অধিষ্ঠিত হন। একই অধিদপ্তরে তিনি একই বছরের ২৪ জুন অতিরিক্ত মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্বগ্রহণ করেন। তার পূর্বে তিনি সরকারি আবাসন পরিদপ্তরে পরিচালক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশন ও এটুআই প্রকল্পের পরিচালক হিসেবে দায়িত্বপালনের সুখকর অভিজ্ঞতা সম্পন্ন আব্দুস সবুর মন্ডলের বহুল কাক্সিক্ষত কর্মস্থলের অন্যতম জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে বদলির আদেশ হয়েছে গত ২৫ মে। এতে তিনি কতোটা আনন্দিত হয়েছেন, সেটা জানা না গেলেও চাঁদপুরের মানুষ যে কতো আনন্দিত হয়েছে সেটা স্থানীয় পত্রিকাগুলোতে তাঁর এ বদলি নিয়ে সংবাদ প্রকাশ এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্বতঃস্ফূর্ত অভিব্যক্তি প্রকাশের মধ্য দিয়ে প্রমাণিত হয়েছে। তাঁর জন্যে শুভকামনা ও দোয়ার যেনো হিড়িক পড়েছে। মনে হচ্ছে, দূরবর্তী অবস্থানে থাকলেও চাঁদপুরের মানুষ তাঁকে আপনত্বের মহিমায় উদ্ভাসিত করেছে। এটা নিঃসন্দেহে তাঁর জন্যে বিরল প্রাপ্তি। আমরা নূতন কর্মস্থলে মোঃ আব্দুস সবুর মন্ডলের সর্বাত্মক সাফল্য কামনা করছি। সাথে সাথে সুস্থতার সাথে তাঁর নেক হায়াত প্রত্যাশা করছি।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়