শনিবার, ২৯ জানুয়ারি ২০২২, ১৪ মাঘ ১৪২৮  |   ১২ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   বালুবাহী ট্রাক চাপায় গাড়ির হেলপার নিহত
  •   চাঁদপুর শহরে যুবকের আত্মহত্যা
  •   ফরিদগঞ্জে ৪ কেজি গাঁজাসহ দুই যুবক আটক
  •   করোনায় মৃত্যু ২০, শনাক্ত ১৫৪৪০ জন
  •   ফরিদগঞ্জে আগুনে পুড়ে বৃদ্ধার মৃত্যু

প্রকাশ : ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ০২:১৬

৭৩ চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে ২৫ জনের মনোনয়ন প্রত্যাহার॥ আজ প্রতীক বরাদ্ধ

হাজীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন- ২০২১ইং

কামরুজ্জামান টুটুল
হাজীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন- ২০২১ইং

আসছে ২৬ ডিসেম্বর হাজীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ১১টি ইউনিয়নের মধ্যে ৭৩ জন জন তাদের মনোনয়ন পত্র জমা দেন। এর মধ্যে সোমবার (৬ ডিসেম্বর) মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ সময় পর্যন্ত চেয়ারম্যান পদে ২৫ জন তাদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন। এ ছাড়া ৩ জন সংরক্ষিত নারী সদস্য ও ২৮ জন সাধারন সদস্য প্রার্থী তাদের মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেন। সবমিলিয়ে ৫৯৯ জন প্রার্থীর মধ্যে ৫৬ জন প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহার করলেন সোমবার। মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্ধ দেয়া হবে। বিষয়টি চাঁদপুর কন্ঠকে নিশ্চিত করেছেন উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ওবায়েদুর রহমান।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ১১ টি ইউনিয়নের মধ্যে গত ২৯ নভেম্বর মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন সব মিলিয়ে চেয়ারম্যান পদে ৭৩ জন, সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ৯০ জন ও সাধারণ সদস্য পদে ৪৩৬ জনসহ মোট ৫৯৯ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এর মধ্যে ঋণ খেলাপীর দায়ে ২জন সাধারণ সদস্য প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল হয়।

সোমবার স্ব-স্ব রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, রাজারাগাঁও ইউনিয়নে চেয়ারম্যান ১১ জন মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। এর মধ্যে গোলাফ ফুল প্রতীকের প্রার্থী মো. ইউসুফ আলী, স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আনোয়ার হোসেন, মো. মফিজুর রহমান, মো. নজরুল ইসলাম, মো. আব্দুল মালেক প্রধানীয়া, মো. দেলোয়ার হোসেন ও মো. জুলফিকার আলী পাটওয়ারী (বাবুল)সহ মোট ৭ জন তাদের মনোনয়ন প্রত্যাহার করেছেন। বর্তমানে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আলহাজ¦ আব্দুল হাদী মিয়া, হাতপাখা প্রতীকের প্রার্থী মাওলানা আবুল হাশেম, স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. রফিক পাটওয়ারী ও মো. সিদ্দিকুর রহমান মাঠে রয়েছেন।

বাকিলা ইউনিয়নে ৭ জন চেয়ারম্যান পদে মনোয়নপত্র জমা দেন। এর মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থী অহিদুজ্জামান পাটওয়ারী, ১ জন সংরক্ষিত নারী সদস্য ও ১ সাধারণ সদস্য প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন। উক্ত ইউনিয়নে বর্তমানে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান লিটন, হাতপাখা প্রতীকের প্রার্থী মো. জামাল উদ্দিন, স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. জুলহাস মিয়া, জহির উদ্দিন মো. রাসেল, মো. শাহআলম মৃধা ও মো. মিজানুর রহমান মাঠে রয়েছেন।

কালচোঁ উত্তর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান পদে ৪ জন প্রার্থীর মধ্যে ইতিমধ্যে মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করেছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ ও আবু সায়েম মিয়াজী। বর্তমানে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. মানিক হোসেন প্রধানীয়া, হাতপাখা প্রতীকের প্রার্থী আব্দুল মতিন মজুমদার মাঠে রয়েছেন।

কালচোঁ দক্ষিণ ইউনিয়ন থেকে ৪ জন চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আকতার হোসেন, হাতপাখা প্রতীকের প্রার্থী মাওলানা শাহাদাত হোসেন, স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী গোলাম মোস্তফা স্বপন ও মো. জাহাঙ্গীর হোসেন ফরাজী মনোনয়ন পত্র জমা দেন। এই ইউনিয়নে চেয়ারম্যান কোন প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেননি। ফলে ৪ জনের সবাই মাঠে রয়েছেন।

হাজীগঞ্জ সদর ইউনিয়নে ৬ জন চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দেন। এর স্বতন্ত্র প্রার্থী শরীফুল ইসলাম, জুলহাস চৌধুরী ও শাকিল আহমেদ টুকুসহ ৩ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন। উক্ত ইউনিয়নে বর্তমানে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী থেকে আলহাজ¦ সফিকুল ইসলাম মীর, হাতপাখা প্রতীকের প্রার্থী মাওলানা মোস্তাফিজুর রহমান ও স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী ইউসুফ প্রধানীয়া সুমন মাঠে রয়েছেন।

বড়কুল পূর্ব ইউনিয়ন থেকে ৭ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। এর মধ্যে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হাফেজ আবুল কাশেম মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেন। বর্তমানে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. আহসান হাবিব, হাতপাখা প্রতীকের প্রার্থী বীরমুক্তিযোদ্ধা ক্বারী আব্দুল হামিদ, গোলাপ ফুল প্রতীকের প্রার্থী মো. আনোয়ার হোসেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী ইমাম হোসেন, মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির ও মজিবুর রহমান মজিব মাঠে রয়েছেন।

বড়কুল পশ্চিম ইউনিয়ন থেকে ৩ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেন । এর মধ্যে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুস সামাদ তার মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেন। বর্তমানে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বীরমুক্তিযোদ্ধা মনির হোসেন গাজী, স্বতন্ত্র প্রার্থী নুরুল আমিন হেলাল মাঠে রয়েছেন।

হাটিলা পূব ইউনিয়নে ৬ জন চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দেন। এর মধ্যে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মোহাম্মদ মোস্তফা কামাল মজুমদার, জাকের পার্টির গোলাপ ফুল প্রতীকের প্রার্থী আরিফ হোছাইন, ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশের প্রার্থী দেলোয়ার হোসেন, স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. আরিফুল ইসলাম, মোশারফ হোসেন ও মো. সোহরাব হোসেন মিয়াজী দাখিল করেন। এই ইউনিয়ন থেকে কোন প্রার্থী তাদের মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করেননি।

গন্ধর্ব্যপুর উত্তর ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান পদে ৭ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এর মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থী আলী আকবর শেখ ও আলী আহম্মদসহ ২ জন চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন। বর্তমানে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী কাজী নুরুর রহমান বেলাল, হাতপাখা প্রতীকের প্রার্থী মো. দেলোয়ার হোসেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. রফিকুল ইসলাম, নেছার আহম্মদ ও মো. ইউনুছ মিয়া মাঠে রয়েছেন।

গন্ধর্ব্যপুর দক্ষিণ ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান পদে ৭ জন পদে মনোনয়নপত্র জমা দিলেও স্বতন্ত্র প্রার্থী শাহিদুল হক, দুলাল হোসেন ও আনোয়ার হোসেনসহ ৩ জন তাদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন। উক্ত ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে এখন মাঠে রয়েছে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী গিয়াস উদ্দিন বাচ্চু, হাতপাখা প্রতীকের প্রার্থী মাওলানা কাউসার হোসাইন, স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. নাছির উদ্দিন ও নাজমুল হাসান মাঠে রয়েছেন।

হাটিলা পশ্চিম ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান পদে ১১ জন মনোনয়ন পত্র জমা দিলেও স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. মাসুদ আলম খাঁন, মো. জসিম উদ্দিন, মো. জসিম উদ্দিন, মো. গোলাম মোস্তফা গাজী ও মোহাম্মদ গোলাম কাউছারসহ ৫ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন। বর্তমানে উক্ত ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী একেএম মজিবুর রহমান, হাতপাখা প্রতীকের প্রার্থী মো. ইয়াছিন মনির, স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. ইমাম হোসেন লিটন, গাজী আলী আহম্মদ, মো. গোলাম চিশতী ও মোহাম্মদ আলী নির্বাচনী মাঠে রয়েছেন।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়