চাঁদপুর, রবিবার, ২২ মে ২০২২, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২০ শাওয়াল ১৪৪৩  |   ২৯ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   চাঁদপুর ডায়াবেটিক সমিতির ৭ম বার্ষিক সাধারণ সভা
  •   ইভিএম’র ভুল ধরতে পারলে ১০ মিলিয়ন ডলার পুরস্কার
  •   মতলব দক্ষিণে মাদক বিক্রিতে বাধা দেয়ায় ছেলেকে না পেয়ে বাবাকে মারধর
  •   ভুয়া বিচারপতি বিপ্লব এখন কারাগারে
  •   মতলব দক্ষিণে কীটনাশক খেয়ে বৃদ্ধের আত্মহত্যা

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি ২০২২, ০০:০০

শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনির বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যাচারের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

সংসদ নির্বাচনকে টার্গেট করে আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্রের এটি একটি অংশ

----------------------সিনিয়র সহ-সভাপতি মোঃ ইউছুফ গাজী

সংসদ নির্বাচনকে টার্গেট করে আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্রের এটি একটি অংশ
স্টাফ রিপোর্টার ॥

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, চাঁদপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনির বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যাচারের প্রতিবাদে চাঁদপুরে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। গতকাল ২৬ জানুয়ারি বুধবার বেলা সাড়ে ১২টায় চাঁদপুর প্রেসক্লাবে জেলা আওয়ামী লীগের একাংশের আয়োজনে এ সংবাদ সম্মেলন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি, চাঁদপুর পৌরসভা ও সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ ইউসুফ গাজী।

লিখিত বক্তব্য ছাড়াও সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের জন্যে যে জমি নির্ধারণ করা হয়েছে, তার জন্যে ভূমি অধিগ্রহণে কমিটি করা হয়। এছাড়া এ জমি নির্ধারণের সাথে আরো সম্পৃক্ত রয়েছে ইউনিয়ন ভূমি অফিস, এসিল্যান্ড অফিস, উপজেলা অফিস ও এডিসি রেভিনিউ অফিস। আর এদের সবার মূলে রয়েছেন জেলা প্রশাসক। অধিগ্রহণের জন্যে নির্ধারিত জমির প্রাক্কলন মূল্যও ভূমি অধিগ্রহণ কমিটি কর্তৃক নির্ধারণ করা হয়। তাঁদের মতামতের ভিত্তিতেই ১০নং লক্ষ্মীপুর মডেল ইউনিয়নের এই জমি চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের জন্যে নির্ধারণ করা এবং অধিগ্রহণের জন্যে মতামত দেয়া হয়। তাহলে আমাদের প্রশ্ন-এখানে জমির মূল্যের বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনিকে কেনো জড়ানো হলো। যাঁর এক তোলা জমিও সেখানে নেই। এমনকি তাঁর বড়ভাই ডাঃ জাওয়াদুর রহিম ওয়াদুদের নামে সেখানে কোনো জমি না থাকা সত্ত্বেও তার নামইবা কেনো আনা হলো। এসবের উত্তর একটাই-আগামী সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে আওয়ামী লীগ সরকারের বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্রের এটি একটা অংশ।

ইউসুফ গাজী বলেন, দীর্ঘ ৩৫ বছর পর আমরা এই আসনটি উদ্ধার করেছি ডাঃ দীপু মনির মাধ্যমে। আমাদের কথা একটাই, আগামী সংসদ নির্বাচনকে টার্গেট করে একটি মহল চাঁদপুরবাসী যাঁকে নিয়ে গর্ব করে তাঁকে নিয়ে গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়ে অপপ্রচারে নেমেছে। উদ্দেশ্যে : ডাঃ দীপু মনিকে হেয় করতে পারলে মন্ত্রী হিসেবে সরকারকে, রাজনৈতিকভাবে আওয়ামী লীগকে এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য হিসেবে আমরা যারা এ আসনের জনগণ আছি তাদেরকে অপমান অপদস্থ করা। তিনি বলেন, ডিসি সাহেব মন্ত্রীকে এ ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করতে পারতেন। আমরা মনে করি জেলা প্রশাসক তাঁর অভিভাবকত্ব হারিয়েছেন। আমাদের জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাছির উদ্দিন আহমেদও অভিভাবক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেননি। তিনি অভিভাবকত্ব হারিয়েছেন বলে আজ আমরা এখানে এসেছি। শুধু তাই নয়, আমরা তিনজনের একটি টিমকে ২ দিন আগে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জনাব আবু নঈম দুলাল পাটওয়ারীর কাছে পাঠিয়ে বলেছি, অপপ্রচার বন্ধ করুন। তিনি কোনো সদুত্তর দেননি। তাই আজকে আমাদের সংবাদ সম্মেলন করা।

মোঃ ইউসুফ গাজী আরও বলেন, আগামী সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সোস্যাল মিডিয়ায় ডাঃ দীপু মনিকে বিতর্কিত করতে যেসব বক্তব্য আমাদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে, তা যদি জেলায় বসে দ্রুত সমাধান করা না হয়, তাহলে আমরা পরবর্তীতে সাংগঠনিক প্রক্রিয়ায় যা করণীয় তাই করবো। আমরা জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক ঐক্য রক্ষায় ধৈর্যের সর্বোচ্চ পরিচয় দিতে সকলের সহযোগিতা কামনা করছি। ‘আপনারা আইনের আশ্রয় নেবেন কি না’ এমন প্রশ্নের আলোকে তিনি বলেন, সেটা সময়ই বলে দিবে।

সাংবাদিক সম্মেলনে জেলা, সদর ও পৌর আওয়ামী লীগসহ অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের অসংখ্য নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন। তাঁদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছেন চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তাফাজ্জল হোসেন এসডু পাটওয়ারী, অ্যাডঃ মজিবুর রহমান ভূঁইয়া, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক অজয় কুমার ভৌমিক, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মাসুদ আলম মিল্টন, উপ-দপ্তর সম্পাদক ও পিপি অ্যাডঃ রনজিত রায় চৌধুরী, চাঁদপুর সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নূরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী অধ্যাপিকা মাসুদা নূর খান, ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডঃ জাহিদুল ইসলাম রোমান, চাঁদপুর পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি রাধা গোবিন্দ গোপ, সাধারণ সম্পাদক আমিনুর রহমান বাবুল, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলী আরশ^াদ মিয়াজী, হাইমচর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ শাহজাহান মিয়া, জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মাহফুজুর রহমান টুটুল, মোঃ আলী মাঝি, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি অ্যাডঃ হেলাল হোসাইন, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শেখ আঃ মোতালেব, বর্তমান সভাপতি জহির উদ্দিন মিয়াজী, সাধারণ সম্পাদক মোঃ সাদ্দাম হোসেন, জেলা যুব মহিলা লীগের সভানেত্রী কাউন্সিলর ফরিদা ইলিয়াছ, সাধারণ সম্পাদিকা ফারহানা জাফর রুমা, সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এবিএম রেজওয়ান, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি সোহেল রানা, সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম রবিন পাটওয়ারীসহ অন্য নেতৃবৃন্দ। এছাড়া বিভিন্ন পেশাজীবী নেতৃবৃন্দও উপস্থিত ছিলেন।

চাঁদপুর প্রেসক্লাব সভাপতি গিয়াসউদ্দিন মিলনের সভাপ্রধানে এবং সাধারণ সম্পাদক রিয়াদ ফেরদৌসের সঞ্চালনায় সংবাদ সম্মেলনে প্রশ্ন করেন বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার প্রতিনিধিসহ সিনিয়র সাংবাদিকগণ। অর্ধ শতাধিকেরও বেশি সাংবাদিক এই সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়