চাঁদপুর, বৃহস্পতিবার, ১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪  |   ২১ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   বিজয়ের মাস ডিসেম্বর শুরু
  •   হাজীগঞ্জের কিউসি টাওয়ারে আগুন :  আহত ১০ 
  •   ৪৫তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ, শূন্যপদ ২৩০৯
  •   করোনার টিকার চতুর্থ ডোজ দেওয়ার সুপারিশ
  •   চাঁদপুর শহরে বিদ্যুৎষ্পৃষ্টে এক যুবকের শরীর জ্বলসে গেছে

প্রকাশ : ২৯ জুলাই ২০২২, ০০:০০

আওয়ামী লীগ নেতার ওপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন
মাহবুব আলম লাভলু ॥

মতলব উত্তর উপজেলার সাদুল্লাপুর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি জয়নাল আবেদীন মোল্লাসহ তার কর্মীদের ওপর অতর্কিত সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। ২৮ জুলাই বৃহস্পতিবার সকালে সাদুল্লাপুর ইউনিয়নের গোপালকান্দি গ্রামের বেড়ি বাঁধের উপর এ মানববন্ধন করা হয়েছে।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন মামলার বাদী রফিকুল ইসলাম রানা, সন্ত্রাসী হামলায় আহত জয়নালের মেয়ে ফারজানা আক্তার, আওয়ামী লীগ নেতা তোফাজ্জল হোসেনে, আতিকুর রহমান প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, এই এলাকার মনির মেম্বার, তার দুই ছেলে কামাল ও শরিফের সন্ত্রাসী বাহিনী আছে। তারা সবসময় সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড ও মাদক বিক্রি করে। তাদের যন্ত্রণায় এলাকাবাসী অতিষ্ঠ। তাদের জুলুমণ্ডনির্যাতনের প্রতিবাদে ভুক্তভোগী মানুষ আজ শান্তিপূর্ণ অবস্থানের উদ্দেশ্যে রাস্তায় দাঁড়িয়েছে।

তারা আরো বলেন, মাদকের করাল গ্রাসে নিমজ্জিত তরুণ সমাজ। মাদক ব্যবসায়ীদের প্রতিহত করতে মৌন প্রতিবাদে অংশগ্রহণ করেছেন মনির মেম্বার ও তার বাহিনীর দ্বারা বিভিন্ন সময়ে জুলুমণ্ডনির্যাতন নীরবে সহ্য করে যাওয়া শত শত পরিবার। তাদের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে কথা বলা কঠিন। সবাই ভয়ে ও আতঙ্কে থাকে। কেউ কথা বলতে গেলে মারধরের শিকার হতে হয়।

মাদকের ভয়াল থাবায় এলাকার তরুণ সমাজ মারাত্মকভাবে বিপর্যস্ত। মাদক গ্রহণ করে তারা বিভিন্ন অপরাধে লিপ্ত হয়ে পড়ছে। আর তারা এই মাদক পুরো এলাকায় ছড়িয়ে দিচ্ছে।

এলাকাবাসীর দাবি, ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি রফিকুল ইসলাম রানা ও তার কর্মীদের উপর নৃশংস হামলার সুষ্ঠু তদন্ত হওয়া জরুরি। সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের মূল হোতা মনির মেম্বার ও তার দইু ছেলে কামাল ও শরিফদের আইনের মাধ্যমে বিচারের আওতায় এনে শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। প্রশাসনের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেছেন ভুক্তভোগীরা।

উল্লেখ্য, গত ১৪ জুলাই মনির মেম্বার, তার ছেলে কামাল হোসেন ও শরীফ হোসেনের নেতৃত্বে অজ্ঞাতনামা ১০-১২ জন সন্ত্রাসী নির্বাচনে তাদের পক্ষে কাজ না করায় ও মাদক বিক্রিতে বাধা দেয়ায় রফিকুল ইসলাম রানা, জয়নাল আবেদিনসহ বেশ ক’জনের ওপর তারা দফায় দফায় হামলা করেছে।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়