চাঁদপুর, সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১ আশ্বিন ১৪২৯, ২৯ সফর ১৪৪৪  |   ৩২ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   চাঁদপুরের হাজীগঞ্জের ভাটরায় স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর মৃত্যুদন্ড
  •   চাঁদপুর জেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রতীক বরাদ্দ চেয়ারম্যান পদে ওচমান হাজীর মোবাইল, জাকির প্রধানিয়ার আনারস
  •   চাঁদপুর জেলা পরিষদ নির্বাচনে ৩ চেয়ারম্যানের প্রার্থিতা প্রত্যাহার
  •   হাইমচরে বজ্রপাতে নৌকা থেকে পড়ে জেলে নিঁঁখোজ
  •   চাঁদপুরে চুরি হওয়া ৪২ মোবাইল উদ্ধার

প্রকাশ : ১৩ আগস্ট ২০২২, ০০:০০

স্পীডবোট গুলি আগ্নেয়াস্ত্রসহ ৫ ডাকাত গ্রেফতার
মিজানুর রহমান ॥

চাঁদপুরে নদীতে স্পীডবোট নিয়ে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে আগ্নেয়াস্ত্রসহ ডাকাত দলের ৫ সদস্যকে আটক করেছে নৌ-পুলিশ। ১১ আগস্ট বৃহস্পতিবার বিকেলে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার ভোর পাঁচটা পর্যন্ত পদ্মা নদীতে এবং আশপাশে বিরামহীন অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। অভিযানকালে একটি স্পীডবোট, দুটি পাইপগান, সাতটি সিসার তাজা কার্তুজ, আটটি রামদা, একটি দেশীয় দা, একটি স্ক্রু-ড্রাইভার, দুটি শাবল ও বিভিন্ন মডেলের ২০টি মোবাইল সেট জব্দ করা হয়। ২টি আগ্নেয়াস্ত্র ও বিপুল পরিমাণ দেশি অস্ত্র জব্দ করে পুলিশ। আটককৃতরা হলো : মুন্সিগঞ্জের আকতার হোসেন (৩০), ইকবাল মুন্সি (২৮), আবুল বাসার (২২), শাকিল দেওয়ান (২১) ও ইয়ামিন (১৯)।

১২ আগস্ট শুক্রবার সকালে নৌ-পুলিশের চাঁদপুর অঞ্চল কার্যালয়ের সভাকক্ষে প্রেসব্রিফিংয়ের মাধ্যমে এ তথ্য জানিয়েছেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ কামরুজ্জামান।

নৌ-পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে এ অভিযানে অংশ নেন অতিরিক্ত নৌ পুলিশ সুপার মোঃ বেলায়েত হোসেন শিকদার, এসআই জহিরুল হক, এএসআই মোঃ শহিদুল ইসলাম, কনস্টেবল মোঃ আবুল বাশার, মোঃ রেজাউল ইসলাম, মেজবাহ উদ্দিন ও এস. এম. ইসরাফিল হোসেন।

প্রেসব্রিফিংয়ে জানানো হয়, বৃহস্পতিবার বিকেলে পদ্মা নদীতে স্পীডবোটযোগে ১২/১৩ জন ডাকাত ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে পুলিশ। এ সংবাদের ভিত্তিতে নৌ-পুলিশ অভিযানে নেমে ডাকাতদের ধাওয়া করে। ধাওয়া খেয়ে ডাকাতরা পুলিশকে লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়ে। পরে পুলিশও আত্মরক্ষার্থে শর্টগান হতে কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি করে। পুলিশের ধাওয়া খেয়ে ডাকাত দল পদ্মা নদীর মুন্সিগঞ্জ জেলার লৌহজং থানার গাঁওদিয়া বাজার সংলগ্ন নদীর পাড়ে তাদের স্পীডবোটটি রেখে লাফিয়ে তীরে নামে এবং দৌড়ে পাটক্ষেতে গিয়ে আত্মগোপন করে। তাৎক্ষণিক স্থানীয় মাঝিরঘাট নৌ-পুলিশ সদস্যরাও এ অভিযানে অংশ নেয়। পরে পাটক্ষেত তল্লাশি করে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় ডাকাত আক্তার হোসেন ও ইকবাল মুন্সি ওরফে সুমনকে গ্রেফতার করা হয়। পরে গ্রেফতারকৃতদের তথ্য ও দেখানো মতে পদ্মা নদীর তীরবর্তী পাটক্ষেত, ধইঞ্চা ক্ষেত, ডোবা-নালার কচুরিপানায় চিরুনী তল্লাশি করে ডাকাত মোঃ আবুল বাশারকে ১টি পাইপগান ও ৪টি কার্তুজসহ গ্রেফতার করা হয়। পুলিশ রাতভর আশপাশে অভিযান চালিয়ে তল্লাশি করে। ভোর সাড়ে ৪টায় ডাকাত মোঃ শাকিল দেওয়ানকে ১টি পাইপগান ও ৩টি কার্তুজসহ গ্রেফতার করা হয়। ভোর ৫টায় পূর্ব পালগাঁও সংলগ্ন ডোবা হতে সর্বশেষ ডাকাত মোঃ ইয়ামিনকে গ্রেফতার করা হয়।

চাঁদপুরের নৌ-পুলিশ সুপার মোহাম্মদ কামরুজ্জামান জানান, বিকেলে পদ্মা নদীতে ডাকাতির প্রস্তুতির খবর শুনে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে ডাকাতরা পুলিশকে লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়ে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়ে। সারারাত অভিযান শেষে ২টি পাইপগান ও দেশীয় অস্ত্রসহ ৫ জন গ্রেফতার করা হয়। এদের মধ্যে ২ জন একাধিক মামলার আসামী। বাকি আসামীদের ধরতে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়