চাঁদপুর, রবিবার, ৭ আগস্ট ২০২২, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৯, ৮ মহররম ১৪৪৪  |   ৩০ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   আমরা মানসম্মত শিক্ষা প্রত্যাশা করি
  •   বাসর রাত থেকেই নির্যাতনের শিকার পারভিন আক্তার
  •   হানারচর ইউনিয়নে মুক্তিযোদ্ধা ও অন্ধ নারীসহ ২০ জনের ভাতার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ
  •   ময়না তদন্ত হচ্ছে ৪ মাসের শিশু শাহরিনের!
  •   জ্বালানি তেলের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে চাঁদপুর জেলা যুবদলের বিক্ষোভ

প্রকাশ : ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০০:০০

চাঁদপুর আউটার স্টেডিয়ামে ৮ ডিসেম্বর মুক্তিযুদ্ধের বিজয়মেলা শুরু

উদ্বোধন করবেন শিক্ষামন্ত্রী

চাঁদপুর আউটার স্টেডিয়ামে ৮ ডিসেম্বর মুক্তিযুদ্ধের বিজয়মেলা শুরু
চাঁদপুর কণ্ঠ রিপোর্ট ॥

চাঁদপুর মুক্তিযুদ্ধের বিজয়মেলার এবার গৌরবের ৩০ বছরপূর্তি। একই সাথে এবার স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিব জন্মশতবার্ষিকী। তাই এবারের বিজয়মেলার গুরুত্ব এবং আকর্ষণ ভিন্নমাত্রার। সে জন্যে আয়োজকদের এবার প্রস্তুতি ব্যাপক।

মাসব্যাপী মুক্তিযুদ্ধের বিজয়মেলার সার্বিক প্রস্তুতি পর্যালোচনায় চূড়ান্ত প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে গতকাল ৪ ডিসেম্বর শনিবার। এদিন বিকেল ৪টায় চাঁদপুর আউটার স্টেডিয়ামে বিজয়মেলা মঞ্চের সামনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। বিজয়মেলা উদ্যাপন পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডঃ বদিউজ্জামান কিরণের সভাপতিত্বে ও মহাসচিব হারুন আল-রশীদের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন বিজয়মেলা স্টিয়ারিং কমিটির সভাপতি যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা এম এ ওয়াদুদ। তিনি বলেন, আমরা যারা মুক্তিযুদ্ধ করেছি তারা কোনো মানুষকে ঘর থেকে ধরে এনে হত্যা করি নি। আমরা হত্যা করেছি শত্রুদেরকে। বিজয়মেলার লক্ষ্য উদ্দেশ্য হলো স্বাধীনতার সঠিক ইতিহাস প্রজন্মকে জানানো। তিনি বলেন, ভুটান ও নেপাল আমাদের স্বাধীনতার স্বীকৃতি দেয় প্রথম। ভারত সরকার তথা ইন্দিরা গান্ধী আমাদের সহায়তা করেছে। আমাদের প্রায় ১ কোটি শরণার্থীকে তারা আশ্রয় দিয়েছে। যুদ্ধে তারা সেনা সদস্য দিয়ে সহায়তা করেছে। ২ লাখ বীরাঙ্গনা নারী আমাদের স্বাধীনতায় অবদান রেখেছে। তিনি বলেন, স্বাধীনতার সময় মেজর জিয়াউর রহমানের নেতৃত্ব জেড ফোর্স গঠন করা হয়। আমরা তাঁকে খাটো করে দেখি না। আমি যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা। যার শরীরে গুলি লেগেছে, সে বুঝেছে গুলির যন্ত্রণা কী? এমএ ওয়াদুদ বলেন, ডিসেম্বর মাস আসলেই প্রজন্ম জানতে চায় চাঁদপুরে মুক্তিযুদ্ধের বিজয়মেলা কবে হবে। সে জন্য বিজয় মেলার আয়োজন। শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি এমপির উপস্থিতিতে বিজয়মেলার উদ্বোধন করা হবে। ৮ ডিসেম্বর চাঁদপুর হানাদার মুক্ত দিবসে বিজয়মেলা শুরু হবে।

এ বছর বিজয় মঞ্চে স্বাধীতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিব জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ৪২টি সাংস্কৃতিক সংগঠন তাদের কর্মসূচি নিয়ে অংশগ্রহণ করবে বলে আয়োজকরা জানান। এবার নতুন জায়গায় তথা চাঁদপুর আউটার স্টেডিয়ামে মেলা করা হচ্ছে। তাই এটি বেশি করে প্রচার করা প্রয়োজন এবং নিরাপত্তার বিষয়টিও বিশেষ গুরুত্ব দিতে হবে।

আরো বক্তব্য রাখেন বিজয়মেলার উপদেষ্টা ডাঃ সৈয়দা বদরুন নাহার চৌধুরী, আব্দুল হামিদ মাস্টার, ডেপুটি কমান্ডার ইয়াকুব আলী মাস্টার, সাবেক মহাসচিব ও স্টিয়ারিং কমিটির সহ-সভাপতি অ্যাডঃ বিনয় ভূষণ মজুমদার, সদস্য শহীদ পাটোয়ারী, ভাইস চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা অজিত সাহা, অ্যাডঃ মজিবুর রহমান ভূঁইয়া, তাফাজ্জল হোসেন এসডু পাটোয়ারী, যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডঃ সাইয়েদুল ইসলাম বাবু, রহিম বাদশা, সাংস্কৃতিক পরিষদের আহ্বায়ক তপন সরকার, নাট্য পরিষদের সদস্য সচিব এমআর ইসলাম বাবু।

উপস্থিত ছিলেন মেলার কর্মকর্তা মুক্তিযোদ্ধা মহসিন পাঠান, আবুল কালাম চিশতী, সাংবাদিক গিয়াসউদ্দিন মিলন, শরীফ চৌধুরী, মির্জা জাকির, সোহেল রুশদী, এএইচএম আহসান উল্লাহ, মাহবুবুর রহমান সুমন, প্যানেল মেয়র অ্যাডঃ হেলাল হোসাইন, নাট্য পরিষদের আহ্বায়ক গোবিন্দ ম-ল, মাঠ ও মঞ্চের সদস্য সচিব মানিক দাস, মিডিয়া কমিটির সচিব কেএম মাসুদ, স্মৃতি সংরক্ষণ পরিষদের আহ্বায়ক মনির হোসেন মান্না, সদস্য সচিব অভিজিত রায়সহ আরো অনেকে।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়