চাঁদপুর, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪  |   ৩০ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   ফরিদগঞ্জে কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশন মেধাবৃত্তি পরীক্ষা
  •   হাইমচরে রাতভর পাহারা দিয়েও রক্ষা হয়নি চরের মাটি
  •   বড়স্টেশন মেঘনায়  ট্রলারের ধাক্কায় নিঁখোজ জেলের লাশ পাঁচদিন পর উদ্ধার
  •   মতলব উত্তরে মোটর সাইকেল দূর্ঘটনায় আহত তানভীরও চলে গেলো না ফেরার দেশে
  •   কাল হেলিকপ্টারে মতলব উত্তরে আসছেন ড. এনায়েতুল্লাহ আব্বাসী

প্রকাশ : ০৪ এপ্রিল ২০২২, ০০:০০

চোর ডাকাত দেখতে কেমন!
কামরুজ্জামান টুটুল ॥

চোর ডাকাত দেখতে কেমন। চোর ডাকাত কি মানুষ থেকে হয়, নাকি? থানা অভ্যন্তরে এসে উৎসক ক’জন শিশু ওসির কাছে জানতে চায়। সেই শিশুদের সাথে কুশলাদি বিনিময় করে শিশুদেরকে কাছে টেনে নিলেন, কথা বললেন, আপ্যায়ন করালেন ওসি। বিষয়টি হাজীগঞ্জ থানার অফিসার জুবাইর সৈয়দের। বৃহস্পতিবার বিকেলে ক’জন শিশু থানা থানা অভ্যন্তরে ঢুকে আসামী রাখার কামরার সামনে ঘুরাফেরা করছে। সিসি ক্যামেরার ফুটেজে ওসি বিষয়টি দেখে এগিয়ে গেলে শিশুরা ওসির কাছে জানতে চায়, আমরা চোর আর ডাকাত দেখতে এসেছি। তারা দেখতে কেমন? এ সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে অফিসার ইনচার্জ জোবাইর সৈয়দ তার নিজের ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন। স্ট্যাটাসটি হুবহু নিচে তুলে ধরা হলো :

স্বপ্ন যখন মানুষ হওয়ার...

আজ বিকেল ৩টায় ৪২ মিনিটে হাজীগঞ্জ থানায় চারজন পঞ্চম শ্রেণী পড়ুয়া শিশু এসে হাজতের সামনে উৎসুক হয়ে দাঁড়িয়ে থাকার দৃশ্য আমি সিসিটিভিতে দেখে এসব কোমলমতি শিশুদের নিকট এগিয়ে আসি। তাদেরকে থানায় এসে এভাবে কী দেখছে? জিজ্ঞেস করি। তারা সমস্বরে বললো, আসামী দেখতে এসেছে! আমি তাদের কাছে আসামীর অর্থ জানতে চাইলাম। তারা বললো, যারা চুরি করে, ডাকাতি করে, মানুষ খুন করে, তারাই আসামী! আমি তাদেরকে জিজ্ঞেস করলাম, তারা কী?

শিশুরা বললো, তারা খারাপ মানুষ! আমি তাদের নিকট জানতে চাইলাম, ‘তোমরা বড় হয়ে কী হবে? দীপ্তকণ্ঠে বললো, আমরা ভালো মানুষ হবো। আমি বললাম, বড় হয়ে কী করবে? তারা বললো, মানুষের উপকার করবো!

তারপর জিজ্ঞেস করলাম, আর কী হবে? তারা সর্বশেষ উত্তর দিলো, ভালো পজিশনে যাবো! কথোপকথনের মাঝে এটিও বললো, তারা কখনো আসামী হবে না!

আমার বিশ্বাস, পঞ্চম শ্রেণী পড়ুয়া শিশুদের প্রথম উত্তর যদি হয় ভালো মানুষ হবো, তাহলে আসলেই তারা কখনো আসামী হবে না।

ভাবতে ভালোই লাগলো তাদের কথা বলার ধরন, চিন্তার ধরন, মনোভাবের ধরন দেখে।

আমরা আশা করতেই পারি, অনূর্ধ্ব দশ বছর বয়সী শিশুদের চিন্তা যদি এমন হয়, নিঃসন্দেহে সুন্দর হবে আগামীর বাংলাদেশ।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়