চাঁদপুর, শনিবার, ২ জুলাই ২০২২, ১৮ আষাঢ় ১৪২৯, ২ জিলহজ ১৪৪৩  |   ৩৪ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   চাঁদপুরের সাবেক এসপি কৃষ্ণ পদ রায় সিএমপির কমিশনার
  •   চাঁদপুরের রোটার‌্যাক্ট ক্লাবগুলোর জিরো আওয়ার সেলিব্রেশন প্রোগ্রাম
  •   চাঁদপুর পৌরসভার অর্থায়নে একটা ব্লাড ব্যাংক করবো
  •   বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে শিক্ষাব্যবস্থা ঢেলে সাজানো হচ্ছে
  •   রোটারিয়ানগণ সেবামূলক যে মহৎ কার্যক্রম করছেন তা সত্যিই অনুকরণীয়

প্রকাশ : ২৫ মে ২০২২, ০০:০০

পুরাণবাজার হরিসভা মন্দির কমপ্লেক্সে বিশ্ব শান্তিকল্পে হরিনাম যজ্ঞ শুরু
অনলাইন ডেস্ক

চাঁদপুরের ঐতিহ্যবাহী প্রাচীন মন্দির শ্রী শ্রী হরিসভা মন্দির কমপ্লেক্সে দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনায় বিশ্ব শান্তিকল্পে হরিনাম মহাযজ্ঞ শুরু হয়েছে। ধর্মগুরু ভারতের নবদ্বীপধাম নিবাসী হাজারো ভক্তের পথ প্রদর্শক নিত্যানন্দ মহাপ্রভুর বংশধর শ্রীল শ্রীযুক্ত প্রভুপাদ জীবন কৃষ্ণ গোস্বামী প্রতিষ্ঠিত এই মহতী হরিনামযজ্ঞ অনুষ্ঠান বৈশি^ক মহামারি করোনার কারণে গত দু বছর বন্ধ থাকলেও এ বছর সপ্তাহব্যাপী ব্যাপক কর্মসূচির মধ্য দিয়ে হরিসভা সার্বজনীন হরিনামযজ্ঞ উৎসব পরিচালনা কমিটি এই ধর্মীয় অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। ২৪ প্রহরব্যাপী হরিনাম যজ্ঞ উপলক্ষে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যপূর্ণ পরিবেশে গত ২১ ও ২২ মে হরিসভা মন্দির কমপ্লেক্সের শ্রীশ্রী রাধা মদন মোহন জিউড় মন্দিরে অনুষ্ঠিত হয় শ্রীমদ্ভাগবত পাঠ। পাঠ করেন বিশিষ্ট পাঠক সঞ্জয় চক্রবর্তী।

গত ২৩ মে সোমবার সন্ধ্যায় শতাধিক নারী-পুরুষ আনন্দ উৎসাহের মধ্য দিয়ে নেচে-গেয়ে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যপূর্ণ পরিবেশে পুরাণবাজারে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা সহকারে গঙ্গা আবাহনের মধ্য দিয়ে হরিনাম যজ্ঞের শুভ সূচনা করেন। মন্দিরের অধ্যক্ষ পুরোহিত কেদারনাথ চক্রবর্তীর (কেদু কর্তা) পৌরোহিত্যে অনুষ্ঠিত হয় হরিনাম যজ্ঞের শুভ অধিবাস ও মঙ্গলঘট স্থাপন। ২৪, ২৫ ও ২৬ মে পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে ২৪ প্রহর অহরাত্র মহা হরিনাম সংকীর্তন। ২৭ মে শুক্রবার দুপুরে অনুষ্ঠিত হবে মহাপ্রভুর ভোগরাগ ও মহোৎসব অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠান চলাকালীন সকল ভক্তের জন্য দুপুর ও রাত্রে মহাপ্রসাদের ব্যবস্থা করেছে উৎসব পরিচালনা কমিটি। হরিনাম কীর্তন পরিবেশন করবেন মদন গোপাল সম্প্রদায় (বাগেরহাট), শ্রী গোপাল বাড়ি সম্প্রদায় (চট্টগ্রাম), নব শিব মন্দির সম্প্রদায় (মাগুরা), তুলশী নারায়ণ সম্প্রদায় (ঢাকা), রাখাল সম্প্রদায় (বরিশাল) ও শ্রীরাম সংঘ (চাঁদপুর)।

আয়োজিত ধর্মীয় অনুষ্ঠান সমূহে জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সকল ভক্তের সানুগ্রহ উপস্থিতি কামনা করেছেন সার্বজনীন হরিনামযজ্ঞ উৎসব পরিচালনা কমিটির ভক্তবৃন্দ।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়