চাঁদপুর, সোমবার, ১৫ আগস্ট ২০২২, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৬ মহররম ১৪৪৪  |   ৩০ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   মন্ত্রীদের দায়িত্বজ্ঞানহীন বক্তব্যে ‘ফুঁসছে’ আওয়ামী লীগ
  •   নিস্তেজ হচ্ছে ডলার, দর কমেছে প্রায় ৮ টাকা
  •   ১৪০০ লিটার চোরাই ডিজেলসহ আটক ১
  •   ,হাইমচরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কলেজ শিক্ষকের উপর হামলা
  •   ছাত্রকে বিয়ে করা সেই শিক্ষিকা নিহত!

প্রকাশ : ২০ জুলাই ২০২১, ০০:০০

দেশকে নিয়ে কষ্ট নয়, স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে নিয়ে ভয় হয়
অনলাইন ডেস্ক

শাহরাস্তি পৌরসভসাস্থ কাজিরকামতা মিয়াজী বাড়ির বাসিন্দা রাজ্জাক হোসাইন রাজু। দীর্ঘদিন ধরে তিনি ফ্রান্সে বসবাস করছেন। সেখানে নিজস্ব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করেন। সম্প্রতি তিনি চাঁদপুর কণ্ঠের সাক্ষাৎকার পর্বের মুখোমুখি হন। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন জাহাঙ্গীর আলম হৃদয়।

চাঁদপুর কণ্ঠ : প্রবাসে কতোদিন আছেন, কী করছেন, কেমন কাটছে সময়?

রাজ্জাক হোসাইন রাজু : আমি দীর্ঘদিন ধরে ফ্রান্সে আছি, নিজস্ব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করছি। ফ্রান্স প্রবাসী বাংলাদেশী কমিউনিটির সাথে কাজ করছি। আলহামদুলিল্লাহ মহামারী করোনার আতঙ্ক আর ভয়ের মাঝেও মহান আল্লাহ সুস্থ রেখেছেন, বেশ ভালো আছি।

চাঁদপুর কণ্ঠ : বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে আপনার অনুভূতি কেমন?

রাজ্জাক হোসাইন রাজু : দেশের একজন নাগরিক হিসেবে অবশ্যই এটি আনন্দের বিষয়। কারণ একটি দেশ অনেক চড়াই-উৎরাই পার করে ৫০ বছরে এসে পৌঁছেছে।

চাঁদপুর কণ্ঠ : আপনার দৃষ্টিতে স্বদেশের উন্নতি-অগ্রগতি কতোটুকু হয়েছে?

রাজ্জাক হোসাইন রাজু : স্বদেশের উন্নতি অবশ্যই হচ্ছে এবং হবে। তবে সরকার দেশের অন্যান্য রাজনৈতিক দলের নেতাদের যদি মূল্যায়ন করতেন তাহলে দেশের যে উন্নতি অগ্রগতি হয়েছে তা আরও দ্বিগুণ হতো। ঘুষ বাণিজ্য, দুর্নীতি, হামলা, ধর্ষণ, নির্যাতন, লুটপাট, আমলাদের পুকুর চুরি হতো না। রাজনৈতিক সম্প্রীতি না থাকায় আমলারাই আজ দেশের বড় সিন্ডিকেট, যা ইচ্ছে তাই করছে।

চাঁদপুর কণ্ঠ : দেশকে নিয়ে আপনার কোনো কষ্ট-বেদনা-অতৃপ্তি আছে কি?

রাজ্জাক হোসাইন রাজু : দেশকে নিয়ে কষ্ট নয়, স্বাস্থ্য মন্ত্রীকে নিয়ে ভয় হয়। কবে যে এই করোনা নামক যন্ত্রণার মতোই স্বাস্থ্যমন্ত্রী দূর হবে। দূরপ্রবাসে বসে যখন দেখি ৫০০ টাকার লাইট ৩৬৫০ টাকায় কেনেন তাও আবার তার গৃহপালিত প্রতিষ্ঠান দিয়ে। দেশের সাধারণ মানুষের স্বাস্থ্যসেবার কথা না ভেবে তিনি পকেট ভারি করছেন। একটা মানুষের জীবনে কতো টাকার দরকার হয় বলুন?

সারা বাংলাদেশের মানুষের অভিশাপ নিয়েই এদের মতো মানুষদের মরতে হবে। যতই অন্যের মনে কষ্ট দিয়ে সম্পদ অর্জন করুক না কেন কবর দেশে গিয়ে শান্তি হবে না ।

বাংলাদেশের ইতিহাস, বিশ্ব ইতিহাস পর্যালোচনা করে দেখুন, কি মুসলিম, কি হিন্দু, কি বৌদ্ধ, কি খ্রিস্টান ধর্মালম্বীদের কেউ মরার পরে সম্পদ নিয়ে যেতে পারেনি আর পারবেও না। তাই ক্ষণিকের জীবনে নিজের সুখের জন্য অন্যের ক্ষতি করে অভিশাপ নিয়ে লাভ কি।

মানুষের ভালোবাসার বিকল্প আর কি কিছুই নেই। আমরা প্রবাসের মাটিতে বসে আত্মীয়-স্বজনদের দেশে রেখে কায়িক শ্রম দিয়ে প্রতি মাসে দেশের অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে রেমিট্যান্স পাঠাচ্ছি। আর দেশের মাটিতে বসে অন্যরা তা লুটপাট করছে। সেটি দেখেই কষ্ট, বেদনা আর অতৃপ্তি লাগে।

চাঁদপুর কণ্ঠ : সকলের উদ্দেশ্যে আপনার পছন্দের কিছু কথা বলুন।

রাজ্জাক হোসাইন রাজু : দেশের প্রতি ন্যূনতম ভালোবাসা থাকলেই দেশের উন্নতি অগ্রগতি শতভাগ বাস্তবায়ন হবে। আর তার জন্য দেশের নাগরিকদের সচেতন হতে হবে। করোনা নামক যন্ত্রণা থেকে বাঁচতে হলে যেমন মুখে মাস্ক, হাতে স্যানিটেশন থাকতে হয়, ঠিক তেমনি দেশের উন্নয়নের জন্য মন পরিষ্কার থাকতে হবে। আসুন আন্তরিকভাবে বাংলাদেশকে ভালোবাসি।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়