চাঁদপুর, শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৩ মহররম ১৪৪৪   |   ২৬ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   নানার বাড়িতে বেড়াতে এসে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু
  •   নাতির নিরাপত্তা চেয়ে দাদির দৌঁড়ঝাঁপ ! 
  •   অবশেষে চাঁদপুর-শরিয়তপুর নৌরুটে রো রো ফেরি
  •   ফরিদগঞ্জে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে গৃহবধূর মৃত্যু
  •   কুড়িয়ে পাওয়া টাকা ফেরত........

প্রকাশ : ২০ জুন ২০২২, ০০:০০

সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান স্বপন মাহমুদের বিরুদ্ধে সম্পত্তি দখলের চেষ্টায় মামলা
স্টাফ রিপোর্টার ॥

চাঁদপুর সদর উপজেলার ৪নং শাহমাহমুদপুর ইউনিয়নের দু'বারের নির্বাচিত সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান স্বপন মাহমুদের বিরুদ্ধে তার নিকট স্বজন জামাল কাজীর ক্রয়কৃত সম্পত্তি দখলের চেষ্টায় চাঁদপুর সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছে ভুক্তভোগী পরিবার।

জানা যায়, সদর উপজেলার শাহমাহমুদপুর ইউনিয়নের বিমলেরগাঁও এলাকায় জামাল কাজীর ক্রয় সূত্রে মালিকীয় (দোকানসহ) সম্পত্তি মাপার জন্যে সার্ভেয়ার গিয়ে সীমানা নির্ধারণ করার চেষ্টা করে। এ সময় কোনো কাগজপত্র ছাড়াই এবং কোনো ধরনের মালিকানা হিস্যা না থাকা সত্ত্বেও উক্ত ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান স্বপন মাহমুদের নেতৃত্বে দু থেকে তিন শতাধিক লোকজন এলোপাতাড়ি হামলা চালিয়ে জামাল কাজীর ক্রয়কৃত সম্পত্তির সকল সীমানা পিলার তুলে ফেলে দেয়। হামলাকারীরা জামাল কাজীর ভাড়াটিয়া কর্তৃক পরিচালিত ফার্নিচার দোকানে হামলা চালায় এবং সম্পত্তিতে থাকা সাইনবোর্ড ভেঙ্গে ফেলে দেয়।

শুধু তাই নয়, ঘটনাস্থলে থাকা জামাল কাজীর নিকট স্বজনদের ওপর এলোপাতাড়ি হামলা চালিয়ে মারাত্মক আহত করে। এক পর্যায়ে স্বপন মাহমুদ তার লোকজন জমি মাপতে বাধা দেয়। তার দোকানের সাইনবোর্ড তুলে ভেঙ্গে ফেলে দেয়। এ সময় বাধা দিতে গেলে চেয়ারম্যানের সাথে থাকা অজ্ঞাত লোকজন জামাল কাজীকে কিল, ঘুষি ও লাথি মেরে আহত করে। হামলার সময় চেয়ারম্যানের সাথে থাকা অজ্ঞাতনামা লোকজন জামাল কাজীকে সম্পত্তির কাছে আবার আসলে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। পরে নিজেদের জীবনের নিরাপত্তার স্বার্থে জামাল কাজী গং দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে চলে এসে ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নেন। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল ১৯ জুন রোববার দুপুরে।

এদিকে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান স্বপন মাহমুদের নেতৃত্বে সংঘবদ্ধ দলটি গত ২ জুন সম্পত্তিতে থাকা ঘরের বিদ্যুৎ সংযোগের প্রায় দুই কয়েল তারসহ মিটার ও আর্থিং লাইনটি রাতের আঁধারে চুরি করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায়ও মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

এ ঘটনার পর জামাল কাজীর ভাই মোঃ সফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে ১৯ জুনের ঘটনায় সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের (মামলা নং ৬৩ তারিখণ্ড১৯/৬/২০২) করেন। উল্লেখিত বিষয়ে অনতিবিলম্বে দুষ্কৃতকারী এবং হামলাকারীদের বিচার দাবি করেছেন সংশ্লিষ্ট এলাকাবাসী।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়