রোববার, ২৩ জানুয়ারি ২০২২, ৮ মাঘ ১৪২৮  |   ২৩ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   চাঁদপুরে করোনা উপসর্গে এক নারীর মৃত্যু
  •   হাইমচরে মৎস্য ব্যবসায়ীর মৃত্যু নিয়ে দুম্র্রজাল
  •   ভুয়া পুলিশ পরিচয়ে কামাল হোটেল মালিক আটক
  •   হাজীগঞ্জে হামিদিয়া জুট মিলে দেয়াল চাপায় শ্রমিক নিহত
  •   হাইমচরে বিষপানে গৃহবধূর আত্মহত্যা : পরিবারের দাবী হত্যা

প্রকাশ : ২০ আগস্ট ২০২১, ০০:০০

ফরিদগঞ্জে রাতের আঁধারে সংখ্যালঘু ব্যক্তির ঘর দখলের অভিযোগ
ফরিদগঞ্জ ব্যুরো ॥

ফরিদগঞ্জে রাতের আঁধারে এক সংখ্যালঘু ব্যক্তির ঘর দখল করার অভিযোগ উঠেছে। পরে ‘৯৯৯’ নাম্বারে সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। উপজেলার বালিথুবা পশ্চিম ইউনিয়নের মদনেরগাঁও গ্রামে বুধবার দিবাগত গভীর রাতে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, বালিথুবা পশ্চিম ইউনিয়নের মদনেরগাঁও গ্রামের চৌধুরী বাড়ির চিকিৎসক প্রণব রায় চৌধুরীর পরিবারের ব্যবহার না করা আধাপাকা ঘর ছিলো। বুধবার গভীর রাত ১টা থেকে শুরু করে ৫ ঘণ্টার মধ্যে কুয়েত প্রবাসী মিরন খান তার লোকজন দিয়ে আধাপাকা ওই ঘরে নতুন টিনের চাল এবং দরজা-জানালা লাগিয়ে দখলদারিত্ব সম্পন্ন করে।

এ ব্যাপারে ওই সম্পত্তির মালিক চাঁদপুর জেলা শহরে বসবাসরত হোমিও চিকিৎসক প্রণব রায় চৌধুরী জানান, তারা তিন ভাইয়ের কেউই বাড়িতে থাকেন না। এ সুযোগে পার্শ^বর্তী মিরন খান তাদের বাড়ির অন্য শরিকদের কাছ থেকে জমি ক্রয় করেছে এমন দাবি করে বারবার জমি দখলের চেষ্টা করে। সর্বশেষ বুধবার গভীর রাতে লোকজন দিয়ে আমাদের মালিকানাধীন অব্যবহৃত আধাপাকা ঘরটিতে টিনের চালা ও ঘরের দরজা-জানালা লাগিয়ে দখল করে নেয়।

তিনি আরও জানান, তারা পৈত্রিক ও খরিদ সূত্রে এখন পর্যন্ত ৪ একর ৬১ শতক জমির মালিক। একই বাড়ির অন্য অংশীদার চিরকুমার সন্তোষ রায় চৌধুরী জীবদ্দশায় তার সম্পত্তি তার মা লুডু রাণীর নামে রেজিস্ট্রি করে দেয়। পরে ওই সম্পত্তি থেকে লুডু রাণী কিছু অংশ হযরত মাওলানা সাইফুল্যাহ নকশেবন্দী মুজাদ্দেদী ও একই বাড়ির নীলকান্ত রায় চৌধুরী কাছে বিক্রি করেন। কিন্তু সন্তোষ রায় চৌধুরীর মৃত্যুর পর পার্শ^বর্তী কুয়েত প্রবাসী মিরন খান দাবি করেন, তিনি সন্তোষ রায় চৌধুরীর কাছ থেকে কিছু জমি ক্রয় করেছেন। সেই থেকে তিনি আমাদের পৈত্রিক জমি দখল করার পাঁয়তারা করে আসছেন। আমরা তাদেরকে বারবার বলেছি, জমির দলিল নিয়ে স্থানীয়ভাবে বসার জন্যে। কিন্তু তিনি তা না করে বারবার আমাদের জমি দখল করার চেষ্টা করছেন। আমরা তার অর্থ-জোরের কাছে অসহায় হয়ে পড়েছি। বৃহস্পতিবার ঘর দখলের সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যাওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে মিরন খান কুয়েত থেকে ফোন করে আমাকে হুমকি দিয়েছেন।

এদিকে সরেজমিন বৃহস্পতিবার দুপুরে গিয়ে দেখা যায়, চৌধুরী বাড়ির বসবাস না করা আধাপাকা ঘরটিতে নতুন করে টিনের চাল ও লোহার দরজা-জানালা লাগানো হয়েছে। স্থানীয় বেশ ক’জন জানান, বুধবার গভীর রাতে তারা লোকজন নিয়ে ঘরের কাজ করেছে। তারা বলেন, জমি ক্রয় করে থাকলে দিনের বেলায় কাজ করবেন। এভাবে রাতের আঁধারে কাজ করার বিষয়টি জোরপূর্বক দখলের নামান্তর।

প্রবাসী মিরন খানের বৃদ্ধা মা কুলছুমা বেগম জানান, এই ঘরটির জমি তাদের খরিদকৃত। বৃহস্পতিবার ভোর থেকে লোকজন দিয়ে তারা নির্মাণকাজ সম্পন্ন করেছেন।

সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে যাওয়া ফরিদগঞ্জ থানার এসআই নাছির উদ্দিন জানান, ক’মাস পূর্বে ঘর দখল প্রচেষ্টার লিখিত অভিযোগ করেন প্রণব রায় চৌধুরী। তখন ঘটনাস্থলে গিয়ে দখলকারীদের কাউকে না পেলেও দুজন নির্মাণ শ্রমিককে আটক করি। পরে মুচলেকায় ছাড়া পায় তারা। সর্বশেষ বৃহস্পতিবার ‘৯৯৯’ নাম্বারে ফোন পেয়ে ঘটনাস্থলে যাই। তবে সেই সময়েও কাউকে পাইনি।

এ ব্যাপারে ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ শহিদ হোসেন জানান, ইতিপূর্বে জমি-সংক্রান্ত বিষয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ ছিলো। আজও ‘৯৯৯’ নাম্বারে সংবাদ আসলে তাৎক্ষণিক পুলিশ ফোর্স ঘটনাস্থলে গিয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়