চাঁদপুর, সোমবার, ১৬ মে ২০২২, ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৪ শাওয়াল ১৪৪৩  |   ৩১ °সে
আজকের পত্রিকা জাতীয়আন্তর্জাতিকরাজনীতিখেলাধুলাবিনোদনঅর্থনীতি শিক্ষা স্বাস্থ্য সারাদেশ ফিচার সম্পাদকীয়
ব্রেকিং নিউজ
  •   শ্রীনগরের চকবাজারে চড়ামূল্যে শ্রমিকের হাট : ধানের জমির মালিকরা হতাশ
  •   হাজীগঞ্জে ইউএনও'র বাজার মনিটরিং
  •   চাঁদপুরে ৪ কেজি গাঁজাসহ আটক ২
  •   শেখ হাসিনার প্রথম অপরাধ জনগণের ভোট ডাকাতি করা : চাঁদপুর জেলা বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশে আব্দুল আওয়াল মিন্টু
  •   কচুয়ায় ১০ কেজি গাঁজাসহ ২ জন গ্রেফতার

প্রকাশ : ০৯ অক্টোবর ২০২১, ০০:০০

চাঁদপুরের গণহত্যা বিষয়ক ‘মধ্যরাতের মোলহেড’ নাটকের মহড়া চলছে
চাঁদপুর কণ্ঠ রিপোর্ট ॥

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে সারাদেশে মঞ্চস্থ হবে গণহত্যা বিষয়ক বিভিন্ন নাটক। তারই ধারাবাহিকতায় চাঁদপুর বড়স্টেশনে গণহত্যার ঘটনা নিয়ে পরিবেশ থিয়েটারের নাটক ‘মধ্যরাতের মোলহেড’ মঞ্চস্থ হবে। আগামী ২৯ ও ৩০ নভেম্বর চাঁদপুর বড়স্টেশন মোলহেড বধ্যভূমিতে নাটকটি পরিবেশিত হবে। সেই লক্ষ্যে গত ১১ সেপ্টেম্বর থেকে চলছে এই নাটকের মহড়া।

৬ অক্টোবর বুধবার বড়স্টেশনে ‘মধ্যরাতের মোলহেড’ নাটক প্রদর্শনীর স্থানে কলাকুশলীদের অভিনয় বুঝিয়ে দেন নাটকের নির্দেশক সাংবাদিক শরীফ চৌধুরী। এ সময় নাটকের কয়েকটি দৃশ্যের মহড়া হয়। নাটকের সকল কলাকুশলী এ সময় উপস্থিত ছিলেন। নাটকটি জেলা শিল্পকলা একাডেমি চাঁদপুরের রেপাটরি নাট্যদল পরিবেশন করবে। গণহত্যা নিয়ে নাটকের ভাবনা ও পরিকল্পনায় রয়েছেন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী। সমন্বয়কারী একাডেমির কর্মকর্তা অলি আহমেদ মুকুল ও মোহাম্মদ আবু ছালেহ। ‘মধ্যরাতের মোলহেড’ নাটকের প্রযোজনা অধিকর্তা হিসেবে রয়েছেন চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ।

নির্দেশক শরীফ চৌধুরী জানান, ‘মধ্যরাতের মোলহেড’ নাটকটি রচনা করেছেন বিশিষ্ট কবি সৌম্য সালেক ও লেখক পীযূষ কান্তি বড়–য়া। তিনি বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী ও তাদের দোসর রাজাকার, আলবদর, আল শামসরা চাঁদপুরের বহু মুক্তিকামী নারী-পুরুষকে বড়স্টেশনে ধরে এনে নির্যাতন, ধর্ষণ এবং গণহত্যা করেছে। এসব কাহিনী তুলে ধরে এবং ঘটনার বিবরণ নিয়ে নাটকটি রচনা করা হয়েছে। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি থেকে এই নাটকের নির্দেশনার দায়িত্ব আমাকে দেয়া হয়েছে। আমি যথাসাধ্য শ্রম দিয়ে নাটকটি দর্শকের সামনে তুলে ধরবো। এটি আমার জীবনের একটি শ্রেষ্ঠ কাজ হবে বলে আমি আশা করছি।

শরীফ চৌধুরী আরো বলেন, নাটকটি করতে গিয়ে আমি চাঁদপুরের সকল নাট্য সংগঠনের সার্বিক সহযোগিতা পাচ্ছি। সাথে চাঁদপুরের সকল সাংস্কৃতিক সংগঠক ও সুধীজনের উৎসাহ পাচ্ছি। সকল নাট্য সংগঠনের নাট্যশিল্পীরা এই নাটকে অংশগ্রহণ করছেনÑএজন্যে আমি বেশি আনন্দিত। এই নাটকে বিভিন্ন সংগঠনের ৪১ জন নাট্যকর্মী অংশ নিচ্ছেন।

বড়স্টেশনে নাটকের মহড়া চলাকালে উপস্থিত ছিলেন নাটকের প্রধান সমন্বয়কারী জেলা শিল্পকলা একাডেমি চাঁদপুরের কালচারাল অফিসার সৈয়দ মুহম্মদ আয়াজ মাবুদ। নাটকে অভিনয় করছেন গোবিন্দ মণ্ডল, আফসানা আক্তার তন্নী, নূরে আলম নয়ন, কেএম মাসুদ, হারুন আর রশিদ ডাক্তার, ফাতেমাতুজ জোহরা, দেবব্রত সরকার বিজয়, আলমগীর হোসেন, রাজা মজুমদার, মানিক দাস, হৃদয় কর্মকার, কামরুজ্জামান শিশির, প্রণব ঘোষ, শরীফুল ইসলাম, গৌতম রায়, পলাশ মজুমদার, আসিফুল আলম, তপন চন্দ্র দাস, সাধন দত্ত, অমরেশ দত্ত জয়, মাসুম বেপারী, মাহিমা রানি দাস তৃষা, ফাতেমা আক্তার মীম, বিরেন সাহা, মেহেদী হাসান, তাসমিয়া ফারহাদ মুনতাহা, সপ্তমী রাণী দত্ত, তাসলিমা আক্তার প্রমুখ।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়